স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: জেলায় জেলায় চলছে বৃষ্টি। দিনভর কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের প্রত্যেকটি জেলায় এই বৃষ্টি চলবে বলে জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সৌজন্যে বিহার ঝাড়খণ্ড লাগোয়া ঘূর্ণাবর্ত। ভারী বৃষ্টির সতর্কতা রয়েছে পাহাড়ের জেলাগুলিতে। বিহার ও ওড়িশায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে। তবে পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে সারাদিন ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

মূলত ভোররাত থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে। দিনের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গে বেড়েছে বৃষ্টির পরিমাণ। টিপটিপ থেকে ঝিরঝিরে হয়েছে বৃষ্টির ধরন। অফিস যাওয়ার সময় শুরু হয়ে গিয়েছে কলকাতাসহ রাজ্যের প্রত্যেকটি জেলাতেই। ফলে বসন্তের এই বৃষ্টি সাধারণ মানুষকে সমস্যার মধ্যে ফেলবে। আজ দিনভর এই সমস্যা চলবে বলে জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

আজ মঙ্গলবার। সকাল থেকে বৃষ্টি হচ্ছে কলকাতাতেও। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ঘূর্ণাবর্তের বৃষ্টির জেরে কমেছে, নেমেছে সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও। সকালে কলকাতার তাপমাত্রা ১৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। গতকাল শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। সকাল সাড়ে আটটা পর্যন্ত বৃষ্টি হয়েছে ২.০ মিলিমিটার। পরে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বনিম্ন ৫১ শতাংশ, সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ।

আজ সকাল পর্যন্ত বাঁকুড়ায় ০.৬, দার্জিলিংয়ে ০.২, ডায়মন্ড হারবারে ৪.০, দিঘায় ১.৪, দমদমে ১.২, জলপাইগুড়িতে ৪.৪ , মালদায় ০.৮, সল্টলেকে ১.০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও