স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা : বৃষ্টির জন্য চাতক হয়ে বসে রয়েছে দক্ষিণবঙ্গ। কিন্তু পর্যাপ্ত বৃষ্টির দেখা নেই। এবার হয়তো কিছুটা বৃষ্টি পেতে পারে। সৌজন্যে নিম্নচাপ। কিন্তু এবার সেই বৃষ্টি কতটা ঘাটতি মেটায় প্রশ্ন থাকছেই, কারণ হাওয়া অফিস বারবার জানিয়েছে নিম্নচাপ দক্ষিণবঙ্গের উপর প্রকট হচ্ছে না। কিন্তু আবহাওয়ার বদল মুহূর্তে হয়। আগের পূর্বাভাসকে বদলে মানুষের আশা এবার বৃষ্টি কিছুটা হলেও অতি কম বৃষ্টির পরিস্থিতিকে লঘু করবে।

হাওয়া অফিস জানাচ্ছে , বাংলা ও ওডিশা উপকূলে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ। পাশাপাশি একটি ঘূর্ণাবর্তও অবস্থান করছে। এই দু’য়ের প্রভাবে আজ শুক্রবার থেকে তিন দিন দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে এমনটাই জানা যাচ্ছে। পূর্বাভাসে অনুযায়ী আজ থেকেই বৃষ্টি শুরু হওয়ার কথা। সেও অনুযায়ী সকাল থেকে আকাশ কালো। খানিক ঝিরঝিরে বৃষ্টিও হয়।

তবে আপাতত বৃষ্টি নেই বলেই খবর মিলছে। বেলা পারলে পরিস্থিতি বদল হতে পারে। দক্ষিণবঙ্গের জেলায় জেলায় বৃষ্টি শুরু হতে পারে বলে পূর্বাভাস হাওয়া অফিসের। শুক্র থেকে শুরু করে শনি হয়ে রবিবার পর্যন্ত বৃষ্টি চলতে পারে। সমুদ্র উত্তাল থাকবে তাই আজ শুক্র ও আগামীকাল শনিবার মৎস্যজীবীদের বাংলা ও ওডিশা উপকূলে সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

এই নিম্নচাপের প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গের কোন জেলাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে? হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে টানা দু-তিন দিন বৃষ্টি হতে পারে। তারমধ্যে শনি ও রবিবার বেশ কয়েকটি জেলায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম ও পশ্চিম বর্ধমানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। রবিবারেও এই জেলাগুলিতেই বৃষ্টি হত পারে।

তবে ঘটনা হল ভারী বৃষ্টির কথা কিন্তু বলছে না হাওয়া অফিস। সেই জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনার কথাই জানাচ্ছে। সেই ট্রেলর সকালেই দেখা মিলেছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও