স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস আগেই ছিল৷ আর সেই পূর্বাভাস মিলতে শুরু করেছিল বৃহস্পতিবার বিকেল থেকেই৷ আর শুক্রবার সকালে তা ব্যাপক আকার নিল৷

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে কোচবিহারের বিভিন্ন অংশ৷ শীতলকুচি-সহ ওই জেলার একাধিক জায়গায় শিলাবৃষ্টিও হয়েছে৷ এর ফলে একদিকে যেমন জনজীবন বিপর্যস্ত হয়েছে, তেমনই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ক্ষেতের ফসল৷

আরও পড়ুন: সাতসকালে আগুনে ভস্মীভূত পুরো বাজার

প্রসঙ্গত, শুক্রবার সকালেই যে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ঝড়বৃষ্টি হবে, তার পূর্বাভাস আগেই দিয়ে রেখেছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর৷ হাওয়া অফিস জানিয়েছিল, উত্তরবঙ্গের উপরে অবস্থান করছে একটি বিশাল নিম্নচাপ অক্ষরেখা। তার জেরেই বৃষ্টি হচ্ছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে। হাওয়া অফিসের সতর্ক বাণী দার্জিলিং, কালিম্পং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়িতে ব্যাপক বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে ৪৫-৫৫ কিলোমিটার বেগে হাওয়াও বইবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

আরও পড়ুন: ভেষজ আবির তৈরির কাজে এগিয়ে এলেন মহিলারা

পূর্বাভাস মিলে যাওয়ায় উত্তরের গরম যেমন কিছুটা কমেছে, তেমনই ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে৷ জনজীবন বিপর্যস্ত হয়েছে৷ তবে প্রশাসনের তরফ থেকে ইতিমধ্যেই ক্ষয়ক্ষতির পরিমাপ করার কাজ শুরু হয়েছে৷