তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস সত্যি করে মঙ্গলবার বিকেলের পর থেকে কালো মেঘে আকাশ ঢেকে গিয়েছিল। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই তীব্র ঝড়ো হাওয়া সঙ্গে বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হল বাঁকুড়ায়। ঝড়ের দাপটে জেলার সোনামুখী সহ বেশ কয়েক জায়গায় গাছ ভেঙ্গে পড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে।

এদিনের বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত জনজীবন। কর্মক্ষেত্র থেকে বিকেলে বাড়ি ফেরার পথে অনেকেই সমস্যায় পড়েছেন। এদিনের বৃষ্টির জেরে দক্ষিণ বাঁকুড়ার বিস্তীর্ণ অংশে বিদ্যুৎ পরিষেবা বিপর্যস্ত। সমস্যায় সাধারণ মানুষ।

এদিন বাঁকুড়া জেলার আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকলেও তীব্র গরমে নাজেহাল মানুষ। তবে বিকেলের পর তুমুল বৃষ্টিতে তাপমাত্রার পারদ অনেকটাই নিম্নমুখী। বেশ খানিকটা স্বস্তিতে বাঁকুড়ার মানুষ। তবে জেলার কোন অংশ থেকে বড় ধরণের ক্ষয় ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

এই মুহূর্তে প্রায় দিনই নিয়ম করে কালবৈশাখী জনিত বৃষ্টিতে আশার আলো দেখছেন জেলার চাষিরা। বিকেলের পর এই তিল, ডাল জাতীয় শস্য সহ অন্যান্য সবজি চাষের ক্ষেত্রে উপকার হচ্ছে বলে তারা মনে করছেন। তবে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হলে লাভের জায়গায় ক্ষতির পরিমাণ বেশি হবে বলেও অনেকে জানিয়েছেন।