নয়াদিল্লিঃ  শ্রাবণ মাস। তাও বর্ষা দেখা নেই দক্ষিণবঙ্গে। ছিটে ফোঁটা কিছু বৃষ্টিতেই স্বস্তি খুঁজছে কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গের মানুষ। সেভাবে কবে বৃষ্টিতে ভিজবে বাংলা সেই হদিশ দিতে পারছেন না আবহাওয়াবিদরা। এই অবস্থায় গলদঘর্ম অবস্থা সাধারণ মানুষের। অস্বস্তিকর গরমে পুড়ছে কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গ। দেশের এক প্রান্তে একটুকু বৃষ্টির জন্যে চাতক পাখি অবস্থা হলেও অন্য প্রান্তে কিন্তু একেবারে অন্য রকম পরিস্থিতি। ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে মৌসম ভবন।

পড়ুন আরও- “মেয়েদের বিকিনি পরিয়ে সেক্সি পোজে ছবি তুলত”

কেরল, দক্ষিণ কর্নাটক, লাক্ষাদ্বীপ, কোঙ্কন, গুজরাত ও গোয়ায় অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতার কথা জানিয়েছে ৷ আগামী ২৪ ঘন্টায় এই সমস্ত জায়গায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে হাওয়া অফিস। পূর্বাভাস মতো, ভারী বৃষ্টিপাতের সঙ্গে ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। প্রভাব পড়বে আন্দামান-নিকোবর দীপপুঞ্জেও। ইতিমধ্যে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

দেশের একাংশের বৃষ্টির পূর্বাভাস দিলেও বাংলার জন্যে এখনও পর্যন্ত বৃষ্টির কোনও পূর্বাভাস নেই। বিশেষ করে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। যদিও গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। যার ফলে উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলাতে বন্যা দেখা দিয়েছে। বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে উত্তরবঙ্গের একাধিক নদী। যার জেরে প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।