কলকাতাঃ  আগামী ২৪ ঘন্টায় বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল হাওয়া অফিস। কলকাতা সহ গোটা রাজ্যেই বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। বেশ কিছু জায়গায় বজ্র-বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে হাওয়া অফিসের তরফে। ফলে রাস্তায় বের হলে অবশ্যই সঙ্গে রাখুন ছাতা।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে দেওয়া পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, বিহার ও ঝাড়খণ্ডের ওপর একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। যার জেরে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝার সৃষ্টি হয়েছে। একই সঙ্গে বঙ্গোপসাগরের উপর বিপরীত ঘূর্ণাবর্তের ফলে আর্দ্র বাতাস ঢুকছেন স্থলভাগে। এই দুইয়ের কারণেই নতুন করে ফের বঙ্গে বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আর তা আগামিকাল সোমবার থেকেই হতে পারে বলে পূর্বাভাস। যদিও রবিবার রাত থেকেই বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া এবং পুরুলিয়াতে বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। তবে কলকাতায় আগামী ৪৮ ঘন্টায় বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হবে।

পাশাপাশি আগামী ৪৮ ঘন্টাতেই ঝড়বৃষ্টি হতে পারে বাংলাদেশ সংলগ্ন দুই ২৪ পরগনা নদিয়া এবং মুর্শিদাবাদে। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলাতেও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ফের বৃষ্টিপাতের কারণে দিনের তাপমাত্রা কিছুটা কমার সম্ভাবনা থাকলেও রাতের তাপমাত্রা বাড়বে বলে অনুমান আলিপুর আবহাওয়া দফতরের। রবিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৪, সর্বনিম্ন ২৯ শতাংশ। এই ফারাক স্পষ্ট করছে সকালে ঠান্ডা আর বেলা বাড়লেই গরমের।

শনিবারও মেঘলা ছিল কলকাতাসহ সমগ্র দক্ষিণবঙ্গের আকাশ। শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩০.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। অর্থাৎ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কমেছে। আর্দ্রতার পরিমাণ ছিল সর্বোচ্চ ৯৭ সর্বনিম্ন ৩৩ শতাংশ। আর্দ্রতাও আজ রবিবার কমেছে।