নয়াদিল্লি: এখনও যাত্রা শুরু হয়নি। তার আগেই নাম ঠিক করার জন্য শুরু হয়েছে তোড়জোড়। রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে দাবি করা হল  সাধারণ মানুষই নামকরণ করতে পারেন দেশের প্রথম বুলেট ট্রেনের।
একটি ‘দেশি’ নাম দেওয়ার জন্য আবেদন করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত নাম এসে পৌঁছেছে অনেক। কিন্তু, মনঃপুত হয়নি রেলমন্ত্রীর সুরেশ প্রভুর। এবার সেই আবেদন দেশ জুড়ে ছড়িয়ে দিতে চান তিনি।

——————————————————————————————————

এই সংক্রান্ত খবর:

১.মাত্র ১ টাকায় জল খাওয়াবে রেল

২.কর্মসংস্থানে বিশ্বের নজরে ভারতীয় রেল ও সেনা

৩.রবিবার ও ছুটির দিনেও খোলা থাকবে রেলের reservation counter

৪.শীঘ্রই চালু হচ্ছে সীমান্তবর্তী চ্যাংরাবান্ধা রেলপথ

৫.কলকাতা থেকে রেলপথে এবার চিন দর্শন!

——————————————————————————————————

সব দেশেই একতা করে নিজস্ব নাম রয়েছে বুলেট ট্রেনের। তেমনটাই এবার নিজের দেশেও চান তিনি।
যেমন জাপানে এই ট্রেনের নাম ‘শিংকানসেন’। ফ্রান্সে নাম ‘টিজিভি’ ও চিনে ‘সাংহাই মাগলেভ’।

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।