মুম্বই: একটি ভাইরাল ভিডিও নিয়ে বেশ বেকায়দায় রেলমন্ত্রক৷ ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে মুম্বইয়ের শহরতলির গোবান্ডি ও মানখুর্দের মধ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা ৩২ টা নাগাদ রেল লাইনের ভাঙা অংশ নজরে আসে।
এর আধঘণ্টার মধ্যেই তা মেরামত করা হয়। কিন্তু যে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় সেখানে দেখা যাচ্ছে ওই ভেঙে যাওয়া অংশে কাপড় বাঁধা হচ্ছে শুধু। এরপরেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে৷ তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে রেলমন্ত্রক৷

সেই বিষয়কে ধামাচাপা দিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যাতেই রেল কর্তৃপক্ষ জানায়, যে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে তার পুরোটা ঠিক নয়। রেল কর্তৃপক্ষ সাফাই দিতে গিয়ে জানায়, শুধুমাত্র ক্ষতিগ্রস্থ জায়গাটিকে সনাক্ত করার জন্যই সেখানে কাপড় বাঁধা হচ্ছিল।

পড়ুন: ‘হয় সংরক্ষণ করুন, নয়তো ভেঙে ফেলুন তাজমহল’

ভিডিওটিতে পরিস্কার দেখা যায়, ক্ষতিগ্রস্ত রেললাইনে কাপড়ের টুকরো বেঁধে তা মেরামতির চেষ্টা করছেন রেলকর্মীরা। ইতিমধ্যেই এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে৷ তারপরেই নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করতে আসরে নামে ভারতীয় রেল৷

ভিডিওটি রেল কর্তৃপক্ষের নজরে আসার পরই তারা বিষয়টি স্পষ্ট করে জানান যে, শুধুমাত্র ভাঙা অংশ চিহ্নিতকরণের জন্যই ওই কাপড়ের টুকরো বাঁধা হয়েছে। মধ্য রেল তাদের এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, রেললাইনের ফিসপ্লেট ভাঙেনি৷ যেহেতু বৃষ্টিতে রঙ টিকবে না, সেজন্য রঙের পরিবর্তে ওই ভাঙা অংশে কাপড়ের টুকরো দেওয়া হয়। এরই সাথে রেল জানায় যাত্রী নিরাপত্তার সঙ্গে এক্ষেত্রে কোনওভাবেই আপোস করা হয়নি।

পড়ুন: প্রথমবার ‘রাম কী পৈড়ি’তে বসে কোরান পড়বেন অযোধ্যার মুসলিমরা

বর্ষায় রেল লাইন জলে ডুবে যাওয়া ঠেকাতে পাকাপোক্ত কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় মুম্বই হাইকোর্ট রেলওয়েকে কড়া বার্তা দিয়েছে। ঠিক সেইদিনই ভাইরাল ভিডিও প্রকাশ্যে আসে। এমনিতেই মুম্বইয়ের ভারী বৃষ্টির কারণে শহরের রেল যোগাযোগ সম্পূর্ণভাবে বন্ধ৷ ভারী বৃষ্টির জেরে জলমগ্ন মুম্বই। গত কয়েকদিনের ভারী বৃষ্টিতে মুম্বই ও পার্শ্ববর্তী একাধিক জায়গায় রেললাইন ও রাস্তা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। আর তার জেরেই ব্যাহত রেল পরিষেবা। বিপর্যস্ত জনজীবন।

ভারী বৃষ্টির ফলে মুম্বইয়ের নালা সোপারা স্টেশনের আপ ও ডাউন লাইনে জল জমায় ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়েছে। ভিরার থেকে চার্চগেট পর্যন্ত লোকাল ট্রেনগুলি ১০ থেকে ১৫ মিনিট দেরিতে চলছে। ভারতীয় মৌসম ভবন জানিয়েছে, আগামী ১০ থেকে ১৩ জুলাই গ্রেটার মুম্বই, থানে, রায়গড় এবং পালগড়ে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।