নয়াদিল্লি : নয়া রেলপথে বানিজ্য কাছে আনতে চলেছে এশিয়া ও কলকাতা ,ইরান ও তুরস্ককে। প্রশান্ত মহাগাসরীয় অঞ্চলে বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে এবার বাংলাদেশ থেকে তুরস্ক পর্যন্ত মালবাহী ট্রেন চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। প্রস্তাবিত এই রেলপথের যাত্রা শুরু হবে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে।

ভারত, নেপাল, ভুটান, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ইরান হয়ে তুরস্ক পর্যন্ত যাবে এই ট্রেন। ভুটান ও আফগানিস্তানে রেলপথ না থাকায় সড়কপথে এই দুই দেশ থেকে মালপত্র নিয়ে গিয়ে ট্রেনে তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ভুটানের সঙ্গে সড়কপথে যোগাযোগ করা হবে কলকাতার মাধ্যমে এবং আফগানিস্তানের সঙ্গে যোগাযোগের কেন্দ্র হবে পাকিস্তানের কোয়েট্টা।

ভারতীয় রেল সূত্রে খবর, চলতি মাসের ১৫ ও ১৬ তারিখ দক্ষিণ এশিয়া রেলের প্রধানদের বৈঠক হবে। সেই বৈঠকে ৬ হাজার কিলোমিটার বিস্তৃত এই রেলপথ নিয়ে আলোচনা হবে। এখন এই দেশগুলির মধ্যে বাণিজ্যের খরচ বিপুল। রেলপথ চালু হলে খরচ অনেকটাই কমে যাবে। সেই কারণেই রেলপথ চালু করার উপর জোর দেওয়া হচ্ছে।

রেলমন্ত্রকের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক বলেছেন, আর্থিক ও সামাজিক সমীক্ষার পর ঢাকা, কলকাতা, দিল্লি, অমৃতসর, লাহৌর, ইসলামাবাদ, জাহেদান, তেহরান ও ইস্তানবুল শহরকে চিহ্নিত করা হয়েছে। ২০১৭-১৮ সালের প্রথম কোয়ার্টারে পরীক্ষামূলকভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে মালবাহী ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। দু দেশের রেলমন্ত্রক এ বিষয়ে চুক্তি করেছে। সেই পরীক্ষার পরেই রেলপথে এতগুলি দেশকে জোড়ার কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।