স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর আতঙ্কে দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু তা সত্বেও বহু মানুষ রাস্তায় ঘুরছে, পাড়ার মোড়ে আড্ডা মারছে। এগুলোকে কড়া হাতে দমনের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন জানালেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা। সেইসঙ্গে তাঁর দাবি, তাঁর দাবি, যেসব জায়গায় লকডাউন মানা হচ্ছে না সেখানে এখনই সেনা নামানো হোক।

রবিবার রাহুল সিনহা বলেন, “প্রধানমন্ত্রী ২১ মার্চ জনতা কার্ফুর কথা ঘোষণা করেন। সেদিন দেশে করোনা সংক্রমিত লোকের সংখ্যা ছিল ২০০, মৃতের সংখ্যা ছিল ৩। আর আজ এই ২৯ মার্চ আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় হাজারের কাছাকাছি এবং মৃত ২৫। অর্থাত্ রোজ একশোর ওপর মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। আগামিকাল ৩০ তারিখ বেলা ১২টা থেকে ভারত তৃতীয় ফেজে প্রবেশ করছে। কিন্তু এরাজ্যের কিছু মানুষ লকডাউনকে উপেক্ষা করছে।”

তিনি আরও বলেন, “চিন, জাপান আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে আমেরিকা, ইতালি, ফ্লান্সের থেকে অনেক এগিয়ে ছিল। লকডাউনের মধ্যে দিয়ে নিজেদের সামলে নিয়েছে চিন ও জাপান। তাই এই থার্ড ফেজে আমাদের সাবধান হতে হবে। তা না হলে গোটা দেশের বিপদ।”

প্রসঙ্গত, লকডাউন ভাঙতে দেখা যাচ্ছে বহু মানুষকে। অনেক ক্ষেত্রেই ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন। এসম্পর্কে রিপোর্ট জমা পড়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে। সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করেছিলেন। সূত্রের খবর, অমিত শাহ মুখ্যমন্ত্রীকে বলেছেন, লকডাউন মানতে না চাইলে আধাসামরিক বাহিনী নামাতে হবে। এব্যাপারে রাজ্যকে সাহায্য করবে কেন্দ্র। যদিও এখনও পর্যন্ত এব্যাপারে রাজ্য কিছু জানায়নি।