স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সকালে পীযূষ গোয়েল বিকেলে রাহুল সিনহা৷ একই দিনে নোবেলজয়ী অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপির এই দুই নেতা। শুক্রবার বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা বলেন‘যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি, তাঁরাই নোবেল পাচ্ছেন’৷ রাহুলের এহেন মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেছেন বাংলার বিভিন্ন রাজনীতিক।বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই দেশজুড়ে নিন্দা শুরু হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপি নেতাদের ওই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

শুক্রবার এক সংবাদমাধ্যমে নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বঙ্গ বিজেপি নেতা বলেন, ‘‘যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি হন, মূলত তাঁরাই নোবেল পাচ্ছেন। নোবেল পাওয়ার ক্ষেত্রে এটা ডিগ্রি কিনা জানি না’’। উল্লেখ্য, অর্থনীতিতে এবার অভিজিতের সঙ্গে নোবেল পেয়েছেন তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী এস্থার ডাফলো।

এদিনই নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদকে নিশানা করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, “আমি নোবেল জয়ের জন্য অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানাচ্ছি। কিন্তু আপনারা তো সবাই জানেন যে ওঁর চিন্তাভাবনা সম্পূর্ণই বামপন্থী মতাদর্শের। অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেসের ‘ন্যায়’ প্রকল্পের অনেক গুণগান করেছিলেন। সেই ভাবনা পরবর্তীকালে ভারতের জনগণই খারিজ করে দিয়েছেন।”

বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের এমন মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই সমালোচনা ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। রাহুল সিনহা ও পীযূষ গোয়েলের এহেন মন্তব্যের বিরোধিতা করে সরব হয়েছেন বাংলার রাজনীতিবিদরা। তৃণমূল মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘একজন ভারতীয় নোবেল পেলে যে সম্মান দেওয়ার কথা, তিনি যদি তা না দেন, তবে তাঁরই অসম্মান হয়। বাঙালি বলে কি এত সমস্যা?’’রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘এসব অসভ্য কথার জবাব দেব না। দেশের মানুষ এর বিচার করবে’’।

বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘‘অমর্ত্য সেনের মতো অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত জীবনকে কলুষিত করার চেষ্টা চলছে। ওঁদের এই কথা বলার কোনও যোগ্যতাই নেই। নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের দয়ায় নেতা হয়েছেন রাহুল সিংহ। পশ্চিমবঙ্গ ফাজলামি করার জায়গা নয়।’’।কংগ্রেস সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘ন্যয় প্রকল্পকে সমর্থন করেছিলেন বলে কি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের কৃতিত্ব এ ভাবে খাটো করা যায়? এই ধরনের মন্তব্য বিজেপি নেতাদের শিক্ষা এবং মূল্যবোধকেই প্রতিফলিত করে।’’