ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: নাম ভুল করে বিপাকে রাহুল গান্ধী৷ তাও আবার এমন একটি রাজ্যের তিনি নাম ভুল করেছেন, যেখানে খুব শীঘ্রই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিধানসভা ভোট৷

সম্প্রতি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি খবরের লিঙ্ক শেয়ার করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ খবরটি মিজোরামের সৈনিক স্কুল সংক্রান্ত ছিল৷ লিঙ্কটি শেয়ার করে কংগ্রেস সুপ্রিমো সৈনিক স্কুলের ছাত্রীদের শুভেচ্ছা জানান৷ কিন্তু মিজোরামের বদলে মনিপুর লিখে ফেলেন রাহুল গান্ধী৷

আরও পড়ুন: ‘রাফায়েল নিয়ে তদন্ত শুরু হলে জেলে যাবেন মোদী’

কথায় আছে, যেখানে বাঘের ভয়, সেখানেই সন্ধে হয়৷ আর ঠিক তেমনই রাহুলের পোস্ট কিছুক্ষণের মধ্যে বিজেপির নজরে পড়ে যায়৷ সঙ্গে সঙ্গে ঝাঁপিয়ে পড়েন বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য৷ তিনি সঙ্গে সঙ্গে স্ক্রিনশট নিয়ে রাহুলের বক্তব্যটি ট্যুইট করেন৷

ওই ট্যুইটে তিনি স্বাভাবিকভাবে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন কংগ্রেস হাইকম্যান্ডকে৷ তাঁর অভিযোগ, কংগ্রেস বরাবর বঞ্চিত করেছে উত্তর-পূর্ব ভারতকে৷ এটা তারই ফল৷

আরও পড়ুন: গণির গড়ে আধিপত্য কায়েম করতে প্রচার শুরু বিজেপির

প্রসঙ্গত, উত্তর-পূর্ব ভারতে একমাত্র মিজোরামে ক্ষমতায় রয়েছে কংগ্রেস৷ মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্টের সঙ্গে জোট সরকারে রয়েছে তারা৷ বাকি সব রাজ্যেই কংগ্রেসকে মোদী-অমিত জুটি কার্যত সাইনবোর্ডে পরিণত করেছে৷ মিজোরামে আগামী ডিসেম্বরের ৭ তারিখ বিধানসভা নির্বাচন৷ এবার ওই রাজ্য জয়কে পাখির চোখ করেছে বিজেপি৷ সেখানে জিততে পারলে উত্তর-পূর্ব ভারতকে কংগ্রেস মুক্ত করতে পারবে মোদী-অমিত জুটি৷

সেই কারণেই রাহুলের পোস্টটি নিয়ে হইচই শুরু হয় বিজেপির অন্দরে৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পোস্টের মাধ্যমে রাহুলের সমালোচনা শুরু করেন বিজেপি নেতারা৷ কমেন্টে নানারকম কটাক্ষও শুরু হয়৷

আরও পড়ুন: চুরি’র তদন্তে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা’র অভিযোগ, মামলা দায়ের হাইকোর্টে

ওই পরিস্থিতিতে বসে থাকেনি টিম রাহুলও৷ সঙ্গে সঙ্গেই পোস্টটি এডিট করে মণিপুরের জায়গায় মিজোরাম লেখা হয়৷ কিন্তু তাতেও দমে যায়নি বিজেপি৷ বরং সেটা নিয়েও সমালোচনা করা হয়৷ ফের ট্যুইট করেন অমিত মালব্য৷

এবার তিনি রাহুলের বিরুদ্ধে আক্রমণের ঝাঁঝ আরও বাড়ান৷ ‘‘মিজোরাম ও মনিপুর উত্তর পূর্ব ভারতের দু’টো আলাদা রাজ্য৷ কংগ্রেস সভাপতি পদে থাকাকালীন এই কথাটা কখনও ভুলব না৷’’ অমিত মালব্য এই কথাগুলো রাহুল গান্ধীকে একশোবার লেখার পরামর্শ দেন৷

আরও পড়ুন: ফের উত্তপ্ত দারিভিট, স্কুল খোলাকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ

যদিও এ নিয়ে কংগ্রেসের তরফে সরাসরি কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷ পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে ব্যস্ত রাহুলও কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি৷