নয়াদিল্লি: নির্বাচনের দিন ঘোষণার পর থেকেই সরকার এবং বিরোধী পক্ষের মধ্যে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগের পালা শুরু হয়ে গিয়েছে৷ দিল্লিতে কংগ্রেস কর্মী সমর্থকদের সম্বোধন করতে গিয়ে রাহুল গান্ধী এয়ারস্ট্রাইকের জবাবের বিষয় নিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালকে নিশানা করতে গিয়ে মুখ ফসকে মাসুজ আজহারকে মাসুজজি বলে সম্বোধন করেন৷ ভোটের মুখে হাতে এমন গরম ইস্যু পেয়ে তার উপযুক্ত ব্যবহার করল বিজেপি৷

রাহুল কর্মিসভায় বলেছিলেন, অজিত দোভাল নিজেই মাসুদ আজহরকে বিমানে বসিয়ে কান্দাহার নিয়ে গিয়েছেন৷ এই কথা বলতে গিয়ে তিনি একটি ভুল করে বসেন৷ তিনি মাসুদ আজহরের নামে ‘জি’ বসিয়ে দেন৷ বিজেপি এবার রাহুলের সেই ভিডিও শেয়ার করে তাঁকে আক্রমণ করল৷ পাশাপাশি #RahulLovesTerrorists টুইটারে ট্রেন্ড করা শুরু হয়৷

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি কংগ্রেস সভাপতিকে আক্রমণ লেখেন, রাহুল গান্ধী এবং পাকিস্তানের মিল কোথায়৷ দুজনেই জঙ্গিকে ভালবাসেন৷ এর আগে মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং কংগ্রেসের নেতা দিগ্বিজয় সিং ওসামাকে ‘জি’ বলে সম্বোধন করেছিলেন৷ এবার কংগ্রেস রাহুলের এই বয়ানের জেরে অস্বস্তিতে পড়েছে৷

সোমবার রাহুল গান্ধী বিজেপি এবং আরএসএসকে নিশানা করে বলেন, এবার মানুষকে ঠিক করতে হবে তারা গান্ধীর হিন্দুস্তান চান নাকি গোডসের হিন্দুস্তান৷ তিনি বলেন এই লোকসভা নির্বাচনের পরে কংগ্রেস সরকার গড়বে৷

প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, পাঁচ বছর আগে দেশে এক চৌকিদার আসে, বলে সে ভ্রষ্টাচারের বিরুদ্ধে লড়তে এসেছে৷ এখন যে কোনও ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করলে বলবে যে চৌকিদার চোর৷