নয়াদিল্লি: মুসলিম ভোটেই জয়ী হয়েছেন রাহুল গান্ধী। এমনটাই দাবি করলেন অল ইন্ডিয়া মজলিস ই ইত্তেহাদুল মুসলিমেন এর সভাপতি তথা সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি।

সোমবার তিনি রাহুলের ওয়ানায জয় প্রসঙ্গে বলেন, এখানে ৪০ শতাংশ মুসলিম জনসংখ্যা। তার জন্যই জিতেছেন রাহুল। রাহুল গান্ধী কংগ্রেসের গড় আমেঠিতে হেরে গিয়েছেন। তাই ওয়ানাড়ে কীভাবে জিতলেন, তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে একথা বলেন ওয়াইসি।

হায়দরাবাদের সাংসদ বলেন, তিনি আশাবাদী যে মুসলিমদের জন্য এমন অবস্থা তৈরি হবে দেশে, যাতে এই সম্প্রদায়কে কারও দয়ায় বাঁচতে না হয়।

রবিবার এক জনসভায় ওয়াইসি বলেন, ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট। আমাদের পূর্বসূরিরা ভেবেছিলেন নতুন ভারত তৈরি হবে। আজাদ, গান্ধী, নেহরু, আম্বেদকর- এবং তাঁদের অসংখ্য ভক্তের এই দেশ। আমি এখনও আশাবাদী মুসলিমদের জন্য একটা জায়গা তৈরি হবে। আমরা ভিক্ষা চাই না। আমরা তোমাদের দয়ায় বাঁচতে চাই না।

আরও ব্যাখা দিয়ে এই সাংসদ বলেন, পঞ্জাবে বিজেপি হেরেছিল। কারণ, সেখানে শিখরা সংখ্যায় বেশি। বিজেপি দেশের যে প্রান্তে হেরেছে তার কারণ আঞ্চলিক দল। এর কারণ কংগ্রেস নয়। কংগ্রেস নেতা নিজেই আমেঠিতে হেরেছেন। ওয়াইনাড়ে জিতেছেন। কারণ সেখানে ৪০ শতাংশ মুসলিম।

কংগ্রেসের গড় বলে পরিচিত আমেঠি। অথচ সেখানে বিজেপির স্মৃতি ইরানির কাছে হেরে গেছেন রাহুল গান্ধী। মুখ রক্ষা হয়েছে ওয়াইনাড়ে। ওয়াসীর দাবি এটা সম্ভব হয়েছে মুসলিম ভোটের জন্য।

এটাই প্রথমবার নয়, এর আগেও একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন ওয়াইসি। কিছুদিন আগে কমল হাসানকে ‘হিন্দু সন্ত্রাসবাদী’ বলে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি।

এর আগে পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির খারাপ ফলাফলের পর আসাদুদ্দিন বলেছিলেন, মোদীকে হারানো রাহুলের কম্ম নয়। তিনি দাবি করেছিলেন, “শুধুমাত্র কংগ্রেসের পক্ষে মোদীকে হারানো সম্ভব নয়।”