নয়া দিল্লি : করোনা আক্রান্ত হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে ট্যুইট করে আরোগ্য কামিনী করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তবে রাহুল গান্ধী তাই বলে কেন্দ্রর করোনা নিয়ে ব্যর্থতা তুলে ধরে ট্যুইট করতে ছাড়ছেন না। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত রাহুল গান্ধী করোনা প্রসঙ্গে একের পর এক কেন্দ্রের ব্যর্থতা ও অদূরদর্শিতা তুলে ধরে ট্যুইট করে চলেছেন।

বুধবার রাহুল গান্ধী করোনা ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে কেন্দ্রের নীতির সমালোচনা করে তাঁর ট্যুইট বার্তায় লেখেন, “কেন্দ্রের ভ্যাকসিন নীতি নোটবন্দির চাইতে আলাদা কিছু নয়। মানুষকে আবার লাইনে দাঁড়াতে হবে। এর ফলে মানুষের অর্থের ক্ষতি, কষ্ট ও বহু প্রাণ শেষ হয়ে যাবে। আর শেষ পর্যন্ত কিছু শিল্পপতিই লাভবান হবেন।”

এমনিতেই দেশের বিভিন্ন রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন শুরু হওয়ার পর থেকে প্রায় রোজই করোনা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে চলেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। আবার সুযোগ পেলেই নির্বাচনী জনসভা থেকে রাহুল গান্ধী সহ পুরো কংগ্রেস নেতৃত্বকে পাল্টা সমালোচনাও করছেন নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহরা ৷ কিন্তু রাহুল গান্ধীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়েই তাঁর আরোগ্য কামনায় কালবিলম্ব না করে তাঁর আরোগ্য কামনা করে সৌজন্য ট্যুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৷ সৌজন্যবোধ রাজনৈতিক বিরোধিতাকে এর ফলে অনেকটাই দূরে সরিয়ে দিয়েছে। কিন্তু তার পরও দমে যাননি রাহুল গান্ধী।

আর তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই মোদী -শাহের আরোগ্য় কামনার ট্যুইট পাওয়ার পরও রাহুল গান্ধীর ট্যুইট করে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে করোনা ইস্যুতে আক্রমণ করা থেকে বিরত হননি৷ মঙ্গলবার রাত থেকে দেশের করোনা রোগীদের চিকিৎসায় অক্সিজেনের অভাব নিয়ে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমণ করেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী ৷

মঙ্গলবারই দুপুরে রাহুল নিজেই ট্যুইট করে জানান, তিনি করোনা আক্রান্ত। ট্যুইটে তিনি লেখেন, তাঁর মৃদু উপসর্গও রয়েছে । করোনা পরীক্ষা করার পর ওই দিনই তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ঘটনাচক্রে মঙ্গলবার সকালেও কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন ভ্যাকসিন নীতি নিয়েও নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমণ করেন রাহুল গান্ধী ৷

তবে রাহুল গান্ধী করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানানোর কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর আরোগ্য কামনা করে ট্যুইট করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ সংক্ষিপ্ত বার্তায় তিনি লেখেন, “লোকসভার সাংসদ রাহুল গান্ধীর সুস্বাস্থ্য এবং দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি৷” এর কিছুক্ষণের মধ্যেই কংগ্রেস নেতার সুস্থতা কামনা করে ট্যুইট করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও৷ ট্যুইট বার্তায় তিনি লেখেন, “রাহুল গান্ধির দ্রুত আরোগ্য এবং সুস্বাস্থ্য কামনা করি৷”

তবে মোদী-শাহের শুভেচ্ছা বার্তা পাওয়ার পরও করোনা ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে টানা আক্রমণ শানিয়ে চলেছেন রাহুল গান্ধী ৷ মঙ্গলবার রাতে ফের একবার ট্যুইট করে দেশে অক্সিজেনের অভাবের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের অদূরদর্শিতা এবং ব্যর্থতাকেই দায়ী করেন রাহুল গান্ধী৷ বুধবার সকালেও রাহুল গান্ধীর ট্যুইট বানে বিদ্ধ হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর সরকার।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.