ইম্ফল: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ সংশয় প্রকাশ করে জানান, আদৌও মোদী বিশ্ববিদ্যালয় গিয়েছেন কিনা৷

মণিপুরের ইম্ফলে ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন রাহুল গান্ধী৷ সেখানে তিনি কেন্দ্রের নানা নীতি, পরিকল্পনা ও কর্মসূচির সমালোচনা করেন৷ দেশে বেকারত্ব বাড়ছে বলেও তোপ দাগেন রাহুল৷ এরপরই ভরা সভায় তিনি মোদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি নিয়ে কেউ কিছু জানে না৷ কেউ জানেন না তিনি আদৌ বিশ্ববিদ্যালয় গিয়েছেন কিনা৷’’

অতীতেও কংগ্রেস নেতারা মোদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ ২০১৭ সালের দলের প্রবীণ নেতা দিগ্বিজয় সিং মোদীর বিরুদ্ধে তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা গোপন রাখার অভিযোগ তোলেন৷ এই নিয়ে যখন তিনি সমালোচনার মুখে পড়েন তখন দিগ্বিজয় সিংয়ের সাফাই, প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন তোলা অপরাধ নয়৷

শুধু একা কংগ্রেস নয়৷ আপ নেতা ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ট্যুইট করে মোদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ সেই কারণে তাঁর বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য ধারায় ওয়ারেন্ট জারি করা হয়৷ বিরোধীদের মোদীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে নানা প্রশ্ন ও কৌতুহলের জুঁতসই জবাব দিতে দেখা গিয়েছে বিজেপি নেতাদের৷ দলের নেতারা জানান, বিরোধীদের যখন কিছু বলার থাকে না তখনই তারা মোদীকে আক্রমণ করে৷

কেন্দ্রের তরফে প্রধানমন্ত্রীর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রির কপি সামনে আনা হয়৷ তাতে দেখা গিয়েছে মোদী দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ এবং গুজরাত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এ পাশ করেছেন৷এমনকী ২০১৬ সালে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় পরিস্কার জানিয়ে দেয় ওই সার্টিফিকেট আসল৷