জয়পুর:‌ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনার পাশাপাশি এবার বেকারত্ব, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে তুলোধনা করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী৷জয়পুরে একটি অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদীর কড়া সমালোচনায় সরব রাহুল৷

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে কেন্দ্র বিরোধিতায় সরব বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি৷ইতিমধ্যেই দেশের ৪ রাজ্যে সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ হয়েছে৷ কেরল, রাজস্থান, পঞ্জাবের পর সোমবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভাতেও পাশ হয়েছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব৷ দেশজুড়ে কেন্দ্র বিরোধিতায় সুর আরও চড়া হলেও সিএএ নিয়ে অনড় অবস্থান কেন্দ্রীয় সরকারের৷ একের পর এক সভা-মিছিলে সিএএ-র পক্ষে সওয়াল করে চলেছেন মোদী-শাহরা৷ এই ইস্যুতেই আবারও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কড়া সমালোচনায় সরব রাহুল গান্ধী৷

মঙ্গলবার সকালে দিল্লিতে একটি অনুষ্ঠানে সিএএ ইস্যুতে বিরোধীদের একহাত নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ তারই কিছুক্ষণ পর জয়পুরের জনসভায় সিএএ ইস্যুর সঙ্গেই দেশের অর্থনীতি ও বেকারত্ব নিয়ে মোদীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

কর্মসংস্থান নিয়ে মোদিকে বিঁধে রাহুল বলেন, ‘‌প্রধানমন্ত্রী ২ কোটি চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন৷এখন গত এক বছরে ১ কোটি যুবক-যুবতী কাজ হারিয়েছেন৷’ সাম্প্রতিক সভা-মিছিলে সিএএ ও এনআরসি নিয়ে সওয়াল করে চলায় প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে রাহুল আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এখন যেখানেই যান সেখানেই শুধু সিএএ, এনআরসি নিয়েই কথা বলেন৷দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা বেকারত্ব নিয়ে কোনও কথাই বলেন না নরেন্দ্র মোদী৷’

একইসঙ্গে নোটবন্দি নিয়েও মোদীকে তুলোধনা করেছেন রাহুল৷এরই পাশাপাশি ধর্মীয় অসহিষ্ণুতার প্রসঙ্গ তুলে রাহুলের মন্তব্য, ‘‌আগে সারা বিশ্বে ভারত সৌভ্রাতৃত্ব, একতা এবং ভালোবাসার জন্য আর পাকিস্তান বিভাজন আর ঘৃণার জন্য পরিচিত ছিল৷ভারতের সেই ছবি নষ্ট করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷’

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কেন্দ্র বিরোধিতায় সুর ক্রমেই চড়া হচ্ছে৷ইতিমধ্যেই কেরল, রাজস্থান, পঞ্জাব-সহ পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ হয়েছে৷দেশের মধ্যে প্রথম রাজ্য হিসেবে সুপ্রিম কোর্টে সিএএ-র বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ করে মামলা করেছে বামশাসিত কেরল৷বিরোধীরা যতই একযোগে প্রতিবাদ জানাচ্ছে, ততই সিএএ-র সমর্থনে সওয়াল করে চলেছেন বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা৷