নয়াদিল্লি: সিটিজেনসিপ অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্ট ইস্যুতে বিরোধিদের ওপর আক্রমণ হেনেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী এবং অল-ইন্ডীয়া-মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়েইসির বিরূদ্ধে তোপ দেগে বলেন যে, এঁরা ভারতকে ভাগ করার চেষ্টা করছেন।

বৃহস্পতিবার তিনি দোষারোপ করে বলেন যে, “রাহুল গান্ধী এবং আসাদুদ্দিন ওয়েইসি সিটিজেনসিপ অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্ট ইস্যু করে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু করার প্ররোচনা দিচ্ছেন”।

সংবাদসংস্থার মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান যে, “মুঘল এবং ব্রিটিশরা যা করতে পারেনি, রাহুল গান্ধী, টুকরে-টুকরে গ্যাং এবং আসাদুদ্দিন ওয়েইসি তাই করতে চাইছেন। তারা ভারতকে ভাগ করতে চাইছেন। তাঁরা দেশে গৃহযুদ্ধ চাইছে”।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অসমে কোনও ডিটেনশন ক্যাম্প কেন্দ্র তৈরি করছে না, এই মন্তব্যের পাল্টায় রাহুল গান্ধী ট্যুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন যেখানে অসমের মাটিয়া অঞ্চলে কেন্দ্রের তরফে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হচ্ছে বলেই দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস। রাহুল গান্ধী লিখেছিলেন, “#jhootJhootJhoot, আর.এস.এস এর প্রধানমন্ত্রী ভারত মাতাকে মিথ্যে বলছে”।

রাহুলের ট্যুইটের পাল্টায় আক্রমণ শানিয়ে বিজেপি বলে, “মিথ্যের রাজা’। অসমের ওই তিন ডিটেনশন ক্যাম্প কংগ্রেস তৈরি করেছে যখন রাজ্যে এবং কেন্দ্রে তারাই ক্ষমতায় ছিল”।

ভারতীয় সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত এদিন সকালে সিটিজেনসিপ অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্টের বিরোধিতা করে প্রতিবাদকে কটাক্ষ করেছেন। তাঁর কঠায় রাজনৈতিক দিক রয়েছে বলেই জানিয়েছিলেন অল-ইন্ডীয়া-মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়েইসি। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই তিনি এমন মন্তব্য করেছেন।