প্যারিস: কোর্টে ঝড় তুলে সোমবার ফরাসি ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছেছেন রাফায়েল নাদাল। বেলারুশের ইগর জেরাসিমোভকে স্ট্রেট সেটে (৬-৪, ৬-৪, ৬-২) হারিয়ে টানা চতুর্থবার রোলা গ্যারোঁয় তাঁর শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের অভিযান শুরু করলেন স্প্যানিয়ার্ড। তবে ম্যাচ জিতলেও চলতি বছর টুর্নামেন্টের অফিসিয়াল বল নিয়ে খুশি নন ক্লে-কোর্টের অবিসংবাদী নায়ক।

ডমিনিক থিয়েম, নোভাক জকোভিচ আগেই অভিযোগ জানিয়েছিলেন। এবার অভিযোগ করলেন ১২ বারের ফরাসি ওপেন জয়ী। উল্লেখ্য, ফরাসি ওপেন কর্তৃপক্ষ চলতি বছর গতানুগতিক ‘ব্যাবোলাট’ ছেড়ে ‘উইলসন’ টেনিস বল ব্যবহার করছে গ্র্যান্ড স্ল্যামে। প্রথম রাউন্ডে জয়ের পর উইলসন বল অনেক বেশি ভারি এবং মন্থর বলে জানিয়েছেন থিয়েম। সোমবার প্রথম রাউন্ডের ম্যাচ জিতে একই অভিযোগ করলেন রাফা।

একেতেই চার মাস পিছিয়ে যাওয়ায় প্যারিসের সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের ঠান্ডা আবহাওয়া মানিয়ে নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ছে প্রতিযোগীদের জন্য। তার উপর নতুন বলের সমস্যায় বেশ বেকায়দায় প্রতিযাগীরা। নাদাল জানিয়েছেন, ‘উইলসন বল কখনোই ক্লে-কোর্টে খেলার উপযুক্ত নয়।’ সদ্য ইউএস ওপেন বিজয়ী থিয়েম জানাচ্ছেন, ‘আবহাওয়ার চেয়েও বল বেশি পার্থক্য গড়ে দিচ্ছে। ব্যাবোলাট আমার প্রিয় বল ছিল। অনেক দ্রুত এবং সুন্দর ছিল। খেলার জন্য একেবারে উপযুক্ত। কিন্তু নতুন বল অনেক মন্থর। কিছুক্ষণ খেলার পর আকারে বড় হয়ে যাচ্ছে। যা ম্যাচের ফলাফলে প্রভাব ফেলতে পারে।’

ইউএস ওপেনের পর সেপ্টেম্বর-অক্টোবর উইন্ডোয় প্যারিসের আবহাওয়ায় কেউই গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেলে অভ্যস্ত নন। সবমিলিয়ে আবহাওয়ার সঙ্গে বলের সমস্যা একত্রে যেন মাথাব্যথা বাড়িয়ে তুলেছে নাদাল-থিয়েমদের। জকোভিচ যেমন বলছেন, ‘আমি সহমত যে নতুন বল একটু ভারি। সমস্যাটা আরও অনুভূত হচ্ছে কারণ আমরা প্রায় অক্টোবরে পৌঁছে গিয়েছি। আর অক্টোবরে এখানে প্রবল ঠান্ডা। মাটি ভারি এবং ভিজে থাকছে। সামগ্রিক আবহাওয়া বলকে আরও প্রভাবিত করছে। আমি জানি না বলটা আদতেই এতো ভারি নাকি এই আবহাওয়ায় বেশি ভারি বলে মনে হচ্ছে।’

নাদাল আবার বলছেন, ‘আমি মায়োর্কার গরমে এই বলে প্র্যাকটিস করেছি। আদতেই এই বলটা খুব মন্থর। সত্যি বলতে ক্লে-কোর্টে খেলার উপযুক্ত বল নয় এটা। আবহাওয়ার পাশাপাশি এই বল সমস্যা আরও বাড়িয়ে তুলছে।’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।