নিউইয়র্ক: ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠলেন রাফায়েল নাদাল৷ ‘ঘরের ছেলে’ হুয়ান মার্টিন দেল পোর্তোকে ৪-৬,৬-০,৬-২,৬-২ সেটে পরাজিত করলেন রাফা৷ ফ্লাশিং মেডোয় এটি তাঁর তিননম্বর ফাইনাল৷ খেতাব জয়ের জন্য তাঁকে লড়তে হবে দক্ষিণ আফ্রিকার কেভিন অ্যান্ডারসনকে৷

আরও পড়ুন: দেড় দশক পর ফ্লাশিং মেডোয় আবার অল-আমেরিকান ফাইনাল

কোয়ার্টার ফাইনালে রজার ফেডেরারকে হারানোর পর অনেকেই বলেছিলেন,দেল পোর্তোর দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হওয়া শুধু সময়ে অপেক্ষা৷ কিন্তু সেমি ফাইনালে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীর নাম যে রাফায়েল নাদাল সেটা বোধহয় ভুলেই গিয়েছিলেন তারা৷ কোয়ার্টার ফাইনালে রজারকে হারানো দেল পোর্তোকে যেভাবে হারালেন নাদাল তাতে একটা কথা সবার মুখে আবার ফিরে এসেছে ‘ভামোস রাফা’৷ প্রথম সেটে ৪-৬ হেরে শুরু করেছিলেন রাফা৷ কিন্তু প্রথম সেটে যে ভুলগুলো করেছিলেন সেগুলো আর পরের সেটগুলোতে করেননি তিনি৷ দ্বিতীয় সেট কোনও পয়েন্ট না খুয়য়েই নিজের নামে করেন স্প্যানিশ তারকা৷ যে ফোরহ্যান্ডে উপর ভর করে রজারকে হারিয়েছিলেন দেল পোর্তো সেই ফোরহ্যান্ডকেই এদিন অকেজো করে দেন ১৫ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম চ্যাম্পিয়ন৷ তবে রাফার পাল্টা ফোরহ্যান্ডের কোনও জবাব ছিলনা দেল পোর্তোর কাছে৷

আরও পড়ুন: চিনা পার্টনারকে সঙ্গে নিয়ে শেষ চারে সানিয়া

এদিন ম্যাচ দেখতে হাজির ছিলেন হলিউড তারকা লিওনার্দো দি’কাপ্রিও, গল্ফ তারকা টাইগার উডস৷ জেতার পর নাদাল বলেন,‘ শেষ কয়েক বছর খুব একটা ভালো কাটেনি৷ এই বছরটা প্রত্যাশার চেয়ে ভালো কাটলো৷ এটার জন্যই বেশ আবেগপ্রবন হয়ে পড়েছি৷ দেল পোর্তো প্রসঙ্গে বলেন,‘ হুয়ান টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই খুব ভালো খেলছে৷ তাই ওর বিরুদ্ধে ম্যাচ সহজ ছিল না৷ আমি আত্মবিশ্বাসী ছিলাম ওকে হারাবই৷ সেইজন্য আমার সবকিছুই পজিটিভ হয়েছে৷’

আরও পড়ুন:তিনবছর পর র‍্যাঙ্কিং-এর শীর্ষে নাদাল

অন্যদিকে ফাইনালে নাদাল যার বিরুদ্ধে নামছেন সেই অ্যান্ডারসন প্রথমবার কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে উঠলেন৷ পাবলো ক্যারেনো বাস্তার বিরুদ্ধে একসেট পিছিয়ে পড়েও জয় পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার টেনিস খেলোয়াড়৷ ম্যাচ জেতার পর অ্যান্ডারসন বলেন,‘ বুঝতে পারছি না কি বলবো৷ গ্র্যান্ড স্ল্যাম সবসময়েই কঠিন৷ বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলতে হয় এখানে৷ আমি এই দিনের জন্য বহুদিন অপেক্ষা করেছি৷ শেষ পর্যন্ত আজকে আমি সফল হলাম৷ এখন আমি এই জয়টাই সেলিব্রেট করতে চাই৷’

আরও পড়ুন: লাফাতে গিয়ে মাথাই ঠুকে গেল নাদালের

এদিন ফাইনালে উঠে আরেকটি রেকর্ড তৈরি করেছেন ৬ ফুট ৮ ইঞ্চির এই দক্ষিণ আফ্রিকান তারকা৷ তৃতীয় দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে উঠলেন তিনি৷ এর আগে ১৯৬৫ স্লিফ ড্রাইসডেল ফ্লাশিং মেডোয়া ও ১৯৮৪ কেভিন কুরেন অস্ট্রেলিয়ানও ওপেনের ফাইনালে উঠেছিলেন৷

আরও পড়ুন: রোলাঁ গারোয় ১০বার চ্যাম্পিয়ন নাদাল

তবে ফাইনালে নাদালের বিরুদ্ধে ম্যাচ সহজ হবে না সেটা ভালোই জানেন অ্যান্ডারসন৷ তবে তাঁর জোরালো সার্ভিস নাদালকে ভয়ের কারণ হতে পারে৷ তাই ১৩৭তম ইউএস ওপেন জিতে কি ইতিহাস তৈরি করবেন আন্ডারসন নাকি কেরিয়ারের ১৬ নম্বর গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেই মার্কিন মুলুক ছাড়বেন নাদাল- সেটা জানতে অপেক্ষা করতে হবে মাত্র ৩৬ ঘন্টা৷