স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর : করোনা আবহে রমরমিয়ে মধুচক্র। বড়সড় সেক্স র‍্যাকেটের পর্দাফাঁস করল পুলিশ। এক গৃহস্থের বাড়িতে হানা দিয়ে মধুচক্রের আসর থেকে মোট ৬ জনকে গ্রেফতার করল খড়দহ থানার পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে ৩ জন যুবতী, ২ জন যুবক বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যে ওই বাড়ির মালকিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে, পানিহাটি পুরসভার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে। উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহের শক্তিপুর অটো স্ট্যান্ডের কাছে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে।

নতুন করে বাংলা জুড়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। এই অবস্থায় নতুন করে ঘোষণা করা হয়েছে কোয়ারেন্টাইন জোন। কড়া লকডাউন চলছে এই সমস্ত জোনগুলিতে। সেখানেই লকডাউনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে রমরমিয়ে চলছিল মধুচক্র। অবশেষে ফাঁস করল পুলিশ। যেখানে লকডাউনের জন্যে একগুচ্ছ কড়া নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে সেখানে কীভাবে এই মধুচক্র চলছিল? তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

সূত্রের খবর, স্থানীয় বাসিন্দারা বিগত কয়েক মাস ধরে লক্ষ্য করছিলেন, ওই গৃহস্থের বাড়িতে সন্ধ্যা হলেই বাইরে থেকে অপরিচিত যুবক যুবতীরা ভিড় করছে। বিষয়টি স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকেই জানতে পারে পুলিশ। এরপরই শনিবার গভীর রাতে আচমকা ওই গৃহস্থের বাড়িতে হানা দেয় খড়দহ থানার পুলিশ। একেবারে গোপন সূত্রে চলে পুলিশের এই অভিযান। সেখানে গিয়ে পুলিশের চক্ষুচড়ক অবস্থা! করোনার ভয়কে উপেক্ষা করে রমরমিয়ে চলছে মধুচক্র।

জানা যাচ্ছে, পুলিশ ওই বাড়ির ভিতর থেকে ২ যুবক ও ৩ যুবতীকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। গ্রেফতার করা হয় ওই বাড়ির মালকিন প্রতিমা দত্তকেও।

এই বিষয়ে পানিহাটি পুরসভার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা বলেন, আমরা পাড়ায় নোংরামি করতে দেব না কাউকে। পুলিশ ওদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নিক।

অন্যদিকে, ইতিমধ্যে ধৃতদের জেরা করছে পুলিশ। কীভাবে মধুচক্র চলত সে বাড়িতে তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। ধৃত যুবক ও যুবতীদের প্রত্যেকের বয়স ২০ থেকে ৩৫ এর মধ্যে বলে পুলিশ জানিয়েছে। আগামিদিনে এমন অভিযান আরও চলবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ