লন্ডন: প্রধানমন্ত্রীর কুর্সি খালি৷ নতুন কাকে এই চেয়ারে বসানো যায় তারই চেষ্টা চলছে৷ অন্যদিকে চলছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ৷ ক্রীড়া বিশ্বের নজর সেখানেই আবদ্ধ৷ এসবের মধ্যেই রাজনৈতিক টানাপোড়েন চলছে লন্ডনের রাজনৈতিক মহলে৷ ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে না পেরে পদত্যাগ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে৷ আনুষ্ঠানিকভাবে সরে দাঁড়ালেও এখনই তাঁর দায়িত্ব চলে যায়নি৷

থেরেসা মে পদত্যাগ করেছেন শুক্রবার৷ তারপর থেকেই ব্রিটেনে ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টি নতুন মুখ খুঁজেই চলেছে৷ নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত না হওয়ায় দায়িত্ব পালন করে যাবেন থেরেসা। বিবিসি জানাচ্ছে, কনজারভেটিভ দলের ১১ জন সাংসদের মধ্যে শুরু হয়েছে দলের প্রধান পদ পাওয়ার লড়াই৷ যিনি জয়ী হবেন তিনিই পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন৷ জুলাইয়ের চতুর্থ সপ্তাহে নতুন প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ ততদিন পর্যন্ত থেরেসা মে দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন৷

রিপোর্টে বলা হয়েছে, ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ সাংসদদের যে কেউ দলীয় প্রধান হওয়ার লড়াইয়ে নামতে পারেন৷ সেক্ষেত্রে তাঁদের প্রয়োজন ৮ জন এমপির সমর্থন৷ গোপন ভোটে হবে সেই বাছাই প্রক্রিয়া৷ তারপর হবে আবার বাছাই৷ সবশেষে দু জন হবেন চূড়ান্ত প্রার্থী৷ তাদের মধ্যে কে বেশি উপযুক্ত সেটা নির্ধারণ করবেন বাকি সদস্যরা৷ যিনি চূড়ান্ত নির্বাচিত হবেন তিনিই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী৷