কলকাতা:  সুমিত্রা সেন ‘বাংলার নাইটেঙ্গল’। রবীন্দ্র সংগীত তাঁর সুরে পেয়েছে অন্য মাত্রা। আজীবন তিনি উৎসর্গ করেছেন রবীন্দ্র সংগীত চর্চায়। এবছর তাঁকে ‘রবীন্দ্র রত্ন’ সম্মানে ভূষিত করল পিসি চন্দ্র গ্রুপ। সম্প্রতি এই উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল পিসি চন্দ্র গার্ডেনে। সুমিত্রা সেন সহ উপস্থিত ছিলেন ইন্দ্রানী সেন, শ্রাবনী সেন প্রমুখ।sumitra sen 2

জীর্ণ পাতা যাবার বেলায়, যেমন নতুন পাতার দ্বারে ডাক দিয়ে যায়, তেমনই উত্তর কালের কাছে সুমিত্রা সেন জীবন্ত এক দলিল। সুমিত্রা সেন স্বপ্ন দেখানো এক বাঙালি মেয়ে। স্বামী অনিল সেনের প্রেরনায় সুরের দুনিয়ায় তাঁর পথ চলার শুরু। তাই তো সুমিত্রা দেবী বলেন, “আজ তিনি গায়িকা সুমিত্রা হতেন না, যদি তাঁর স্বামী অনিল সেন না থাকতেন”।

রবীন্দ্র সংগীতকে বিকৃত না করে, সুমিত্রা ঘরনা শ্রোতাদের উপহার দিয়ে এসেছে রবীন্দ্র সংগীত। সম্প্রতি বইয়ের পাতায় বন্দি হয়েছে সুমিত্রার জীবন ইতিহাস ‘স্মৃতিসুধায় সুমিত্রা সেন’। যেখানে রয়েছে গায়িকার মেয়েবেলার টুকরো টুকরো সব স্মৃতি থেকে শুরু করে নানা সব ঘটনা। আর সর্বোপরি রয়েছে সংসার সামলে এক নারীর পুরোদস্তুর পেশাদার হয়ে ওঠার কাহিনি।

ছবি: শশি ঘোষ