মুম্বই: অভিনেতা হিসাবে দর্শককূলের মন জয়ের পর এবার পরিচালনাতে আসতে চলেছেন অভিনেতা আর মাধবন। কিন্তু সম্প্রতি ধর্মচারণ নিয়ে নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁকে। তবে এই খোঁচার অকপট জবাব দিতে ছাড়েননি অভিনেতা।

সম্প্রতি স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের আক্রমণের জবাব হিসেবে কড়া জবাব দিয়েছেন অভিনেতা আর মাধবন। সাফ জানিয়েছেন, ”আমি দরগা, গুরুদুয়ারা, চার্চ, সব জায়গাতেই প্রার্থনায় অংশ নিয়ে থাকি।”

গত বৃহস্পতিবার ছিল স্বাধীনতা দিবস, রাখি পূর্ণিমা ও অভনি অভিত্তম। এই উপলক্ষেই পৈতে ও সাদা ধুতি পরে ছেলে ও বাবার সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেন অভিনেতা আর মাধবন।। অথচ পিছনে দেখা যাচ্ছে যীশুর ক্রস।

আর তা নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের আক্রমণের মুখে পড়তে হয় অভিনেতা আর মাধবনকে। তাঁকে ‘নকল হিন্দু’ বলে আক্রমণ করেন এক নেটিজেন। প্রশ্ন তোলা হয় ”আপনার বাড়ির মন্দিরে ক্রস কেন? আপনি আমার শ্রদ্ধা হারালেন। আপনি কী খ্রিস্টানদের চার্চে হিন্দুদের দেবতাকে খুঁজে পান? আপনি নাটক করছেন।”

তবে নেটিজেনের এই আক্রমণে বিন্দুমাত্র বিচলিত হননি মাধবন। বরং নেটিজেনদের মেজাজ সামাল দিতে শীতল বাক্য প্রয়োগ না করে এই আক্রমণের জবাব তিনি দিয়েছেন বেশ উষ্ণভাবেই। বেপরোয়াভাবে কড়া জবাব দিয়েছেন অভিনেতা আর মাধবন। নেটিজেন আক্রমণের পাল্টা জবাবে অভিনেতা লিখেছন, ”আমি আপনার মতো মানুষের শ্রদ্ধার পরোয়া করি না। আশা করি আপনি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবেন। আমি আপনার অসুস্থ মানসিকতায় হতবাক। আপনি যদি আমার ছবির সঙ্গে স্বর্ণ মন্দিরের ছবি দেখেন, তাহলে কী প্রশ্ন করবেন আমি শিখ হয়ে গিয়েছি? আমি দরগা, গুরুদুয়ারা, থেকে চার্চ পৃথিবীর সব ধর্মীয় স্থানেই প্রার্থনা করে থাকি। প্রত্যেক ধর্মকে শ্রদ্ধা করতে শিখুন।”

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আর মধবনের বক্তব্যকে সমর্থন করেও টুইট করেছেন বেশ কয়েকজন নেটিজেন।