চণ্ডীগড়: পঞ্জাব কংগ্রেসের ফাটলটা দেখা গিয়েছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই৷ সোমবার তাতে ইন্ধন দিলেন পঞ্জাবের এক মন্ত্রী সাধু সিং ধরমসৌত৷ সাধু বলেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংয়ের সঙ্গে সমস্যা হলে মন্ত্রীত্ব ত্যাগ করুন নভজ্যোত সিং সিধু৷ অহেতুক জটিলতা কেন বাড়াচ্ছেন, প্রশ্ন তুলেছেন তিনি৷

সাধু বলেন বিজেপি ছেড়ে কেন কংগ্রেসের এসেছেন সিধু, তা তাঁর জানা নেই৷ কংগ্রেস ছেড়ে তিনি কোথায় যাবেন, তাও ভগবানই জানেন৷ তাই সিধুর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি জানিয়েছেন তিনি৷ তাঁর মতে কংগ্রেস হাইকম্যাণ্ডের উচিত সিধুকে উচিত শিক্ষা দেওয়া৷ পার্টি মিটিংয়ে এই ইস্যু তিনি তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছেন সাধু৷

রবিবার পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং বলেন সিধু তাঁকে সরিয়ে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হতে চান৷ সিধু একজন উচ্চাকাঙ্খী মানুষ৷ তাই আমাকে সরিয়ে দিতে চাইছেন৷ সিধুর জন্য কংগ্রেসের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি৷ সিধুর বিতর্কিত বেশ কিছু মন্তব্যের জন্য বারে বারেই হাত শিবিরকে অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছে বলে জানান তিনি৷

আরও পড়ুন : গেরুয়া ঝড়ের ইঙ্গিতেই কি সোনিয়ার সঙ্গে বৈঠক বাতিল মায়াবতীর, উঠছে প্রশ্ন

রবিবার সপ্তম ও শেষ দফায় নিজের ভোট দিতে যাওয়ার আগে সাংবাদিকদের সামনে নিজের ক্ষোভ উগরে দেন অমরিন্দর সিং৷ দিন কয়েক আগে, চণ্ডীগড় থেকে সিধুর স্ত্রী নভজৌত কৌরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার বিষয়টি বানচাল করে দেন অমরিন্দর বলে অভিযোগ সিধুর৷ সেই প্রেক্ষিতে সিধু নিজের রাগ মেটাচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন অমরিন্দর৷

তিনি আরও বলেন নভজৌত কৌরকে অমৃতসর বা ভাটিণ্ডা থেকে লড়তে বলা হয়েছিল৷ কিন্তু তিনি সাফ না করে দেন৷ তবে সিধু ও অমরিন্দরের মধ্যে যে মধুচন্দ্রিমা কেটে গিয়েছে, তা পরিষ্কার৷ আগে সিধু বলেছিলেন একজন বিধায়ক হিসেবেই পাঞ্জাবের উন্নয়ন করতে চান তিনি৷ উপমুখ্যমন্ত্রিত্বে তাঁর লোভ নেই। মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং যেভাবে চাইবেন সেভাবেই দলকে সেবা করতে চান নভজ্যোৎ সিং সিধু।

শোনা গিয়েছিল উপমুখ্যমন্ত্রী করা হতে পারে সিধুকে। কিন্তু সিধু স্পষ্ট জানাচ্ছেন, “‌ক্যাপ্টেন যেমন চাইবেন, সে ভাবেই কাজ করে যাব আমি। শুধু তাই নয়, রাহুল, প্রিয়াঙ্কা যেমন চাইবেন সে ভাবেই পাঞ্জাবের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাব।”‌ ক্যাপ্টেন অর্থাৎ মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দরের কথাই বলতে চেয়েছেন সিধু।