জয়পুরঃ  মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল বিখ্যাত লোকশিল্পী কুইন হরিশের। জয়সলমির থেকে আজমিরে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন হরিশ। আর সেখানে যাওয়ার পথে মারাত্মক দুর্ঘটনার মধ্যে পড়ে শিল্পী। আর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। কুইন হরিশের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোকের ছায়া তাঁর অনুরাগীমহলের। শোকের ছায়া নেমে এসেছে শিল্পীর পরিবারেও।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, গাড়িতে হরিশ ছাড়াও আরও তিনজন শিল্পী ছিলেন। তাঁদেরও পথ দুর্ঘটনায় মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় গুরুতর যখন আরও পাঁচজন। তাঁদের যোধপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে জখম বেশ কয়েকজনের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, যোধপুরের কাছে কাপারডা গ্রামে জাতীয় সড়কের উপর তাঁর এসইউভিকে পিষে দেয় উল্টো দিক থেকে আসা একটি পণ্যবাহী ট্রাক। বিলরা থানার ওসি সীতারাম বলেন, এসইউভির বাঁদিকে বসেছিলেন হরিশ। তখন উল্টো দিক থেকে দ্রুতগতিতে আসা একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শিল্পীদের গাড়িটিকে ধাক্কা মারে। এরপর তাঁদের গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। শিল্পীকে যখন গাড়ি থেকে বাইরে বের করে আনা হয়, তাঁর কোনও প্রাণ ছিল না বলেই স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। উলটো দিক থেকে আসা গাড়ি জোড়ে ধাক্কা মারার কারণে শরীরে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণ হয়েছে। আর এরফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে কুইন হরিশের।

হরিশের মৃত্যুতে গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘যোধপুরে দুর্ঘটনায় শিল্পীর মৃত্যু খুবই দুঃখজনক ঘটনা।

গোটা দেশে তো বটেই, বিদেশেও রাজস্থানের লোকশিল্পের একটা জায়গা রয়েছে। বহু মানুষ আছেন যারা রাজস্থানের মাটির গান-নাচ শুনতে ভালোবাসেন। আর যাদের নাচ-গান বেশ জনপ্রিয় তাঁদের মধ্যে অন্যতম কুইন হরিশ। গান এবং নাচ ভারতের পাশাপাশি বিদেশেও বেশ জনপ্রিয়।