স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা: ফণী ও লোকসভা নির্বাচনের কারণে রাজ্যের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র দিঘায় পর্যটকদের আনাগোনা কমে গিয়েছিল৷ সেই সব কাটিয়ে দিঘা তার পুরনো ছন্দে পুরনো গতিতে ফিরতে শুরু করছিল৷ তার মধ্যে খাবার কেনাকে কেন্দ্র করে বচসায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দিঘার সমুদ্র সৈকত৷ ঘটনায় জখম হয় চার যুবক৷

জানা গিয়েছে, ঘটনার দিন ওল্ড দিঘার দ্রৌপদী হোটেলে খাবার কিনতে এসেছিল শিবাজী চন্দ ও পল্টু হাজরা৷ সেই সময় হোটেল মালিক পর্ণার সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন এই দুই যুবক৷ অভিযোগ, তখন পর্ণার স্বামী সুশান্ত উত্তেজিত হয়ে শিবাজী ও পল্টুকে সবজি কাটার ছুরি দিয়ে পেটে আঘাত করে৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে আহত পল্টু ও শিবাজির বন্ধু শান্তনু এবং সন্দীপন।

অভিযোগ, তাদের পেটে এবং পায়ে ছুরি চালিয়ে দেয় অভিযুক্তরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ৷ তাঁরা আহত চার জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়৷ পল্টু, শিবাজী এবং সন্দীপনের আঘাত গুরুতর বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। হোটেল মালিক পর্ণা ও তার স্বামী সুশান্তকে আটক করে পুলিশ। পরে শিবাজীর স্ত্রী ছবি চন্দের অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতারর করা হয় বলে জানিয়েছেন দিঘা মোহনা কোস্টাল থানার ওসি গোপাল পাঠক।

ছুরির আঘাতে আহত শিবাজী চন্দ, পল্টু হাজরা, সন্দীপন দাস বর্তমানে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। প্রাথমিক চিকিৎসার পর দিঘা হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে শান্তনু সুঁই নামের অপর আহত যুবককে। আহত চার যুবক দিঘা মোহনা কোস্টাল থানার উত্তর খাদালগোবর, হাড়পুর এবং দহদয়ার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। ধৃত হোটেল মালিক পর্ণা মিত্র এবং তার স্বামী সুশান্ত ঘাঁটাকে বুধবার আদালতে তোলে পুলিশ।