ফাইল ছবি

চন্ডীগড়: লাগাতার বৃষ্টিতে নাজেহাল পঞ্জাবে জারি হল রেড অ্যালার্ট৷ সোমবার রাজ্য সরকার লাল সতর্কতা জারি করে, পাশাপাশি বাড়তে থাকা বৃষ্টিতে পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাও প্রস্তুত৷

এদিকে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং আগামিকাল রাজ্যের স্কুল-কলেজ বন্ধের ঘোষণা করেন৷ গত দুদিন ধরে পঞ্জাবে ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে অবস্থা ক্রমশই দুশ্চিন্তার হয়ে উঠছে৷ সোমবারেও বৃষ্টিতে কোনও বিরাম নেই৷ ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি নিয়েছে ডিস্ট্রিক্ট কন্ট্রোল রুম-ও৷ এর পাশাপাশি যথেষ্ট সংখ্যক নৌকাও রাখা হয়েছে উদ্ধারকার্যে সুবিধার জন্য৷ তবে এই বৃষ্টির কারণে খরিফ শস্য মার খাবে বলে আশঙ্কা কৃষি বিশেষজ্ঞদের৷

পড়ুন: ভারী বর্ষণ ও তুষারপাতের জেরে জেলায় জেলায় বন্ধ স্কুল, অফিস

এদিকে কেরল, অসম, নাগাল্যান্ড, ওড়িশার পর এবার হিমাচলপ্রদেশ। প্রকৃতির করাল গ্রাসে আবার এক স্বর্গরাজ্য। অতি ভারী বর্ষণ ও তুষারপাতের জেরে প্লাবিত বহু এলাকা৷ জনজীবন কার্যত বিপর্যস্ত৷ বহু জায়গায় লাল সর্তকতা জারি করেছে প্রশাসন৷ পরিস্থিতি এতটাই গুরুতর সোমবার ন’টি জেলায় বন্ধ রাখা হয়েছে অধিকাংশ সরকারি-বেসরকারি স্কুল৷ বন্ধ সরকারি অফিস কাছারিও৷ ইতিমধ্যেই এই বন্যার জেরে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

হিমাচল প্রদেশের হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বৃষ্টিপাতে ধরমশালা, উনা, গারেট, জোগিন্দরনগর, সুজানপুর, ভারওয়াইন, নাদাউন, বাইজনাথ, কাঙরা প্রভৃতি জেলার জন জীবন বিপর্যস্ত। এর পাশাপাশি সিমলা,কুফরি,পাওন্তা,কাল্পাতেও প্রবল পরিমাণে বৃষ্টি হয়েছে।