চন্ডীগড়: রাজ্যের আর্থিক ক্ষতিপূরণ করতে হবে ৩০০০ কোটি, তাই মুখ্যমন্ত্রী চাইছেন মদের দোকান খোলা হোক পঞ্জাবে। সেই মর্মে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে অনুমতি চেয়ে চিঠি দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং।

করোনা সংকটে রাজ্যের আর্থিক অবস্থা বেশ খারাপ। রাজ্যের অর্থনৈতিক অবস্থার বিবৃতি দিয়ে এ বিষয়ে অমরিন্দর জানিয়েছেন, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পঞ্জাবকে কিছু কিছু এলাকায় মদের দোকান খোলার অনুমতি দেওয়া উচিত। অবশ্যই মানা হবে সোশ্যাল ডিসট্যানসিং এবং ব্যবহার হবে মাস্ক, বজায় থাকবে দুরত্ব। এক কথায় কোভিড ১৯ প্রতিরোধকারি সব নিয়ম মেনে চলা হবে”।

আবগারি আয়ের অনেকতাই স্বাস্থ্যখাতে ব্যবহার করা যাবে বলে মবে করেন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। করোনা ভাইরাসের আবহে এই সিদ্ধান্ত আর্থিকভাবে অনেকটা সাহায্য করবে বারবার জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২৮ দিন ধরে লকডাউন চলছে দেশ জুড়ে। পঞ্জাবে ইতিমধ্যে লকডাউন ১ মে পর্যন্ত বাড়ানো কথা ঘোষণা করা হয়েছে। বর্তমানে পঞ্জাবে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৫১। এরমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের, ৪৯ জন সেরে উঠেছেন।

বর্তমানে আগামী ৩ মার্চ অবধি দ্বিতীয় দফায় লকডাউন চলছে দেশজুড়ে। এমত পরিস্থিতিতে বন্ধ রয়েছে মদের দোকান সহ সবকিছুই। কিন্তু রাজ্যের আর্থিক অবস্থা খারাপ জানিয়ে এবার অমিত শাহকে চিঠি লিখলেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব