ফাইল ছবি

শ্রীনগর: প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে আবারও উত্তপ্ত ভূস্বর্গ। পুলওয়ামায় সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে উত্তেজনা৷ সূত্র মারফত খবর পেয়ে অভিযান চালায় সেনা৷ ঘটনাস্থলে যেতেই নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে জঙ্গিরা। পালটা জবাব দেয় সেনাবাহিনীও। মুহূর্তে গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়। পুলওয়ামায় সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষে খতম এক জঙ্গি, আহত ২ জওয়ান।

নির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার সকালে পুলওয়ামা জেলার অবন্তীপোরায় অভিযানে যায় সেনা। এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করতেই জঙ্গিরা সেনাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে। এলাকায় ৩-৪ জন জঙ্গি লুকিয়ে ছিল বলে জানতে পারে সেনা। সেই মতো তৎপরতার সঙ্গেই শুরু হয় অভিযান। জঙ্গিদের গুলির জবাব দিতে থাকে সেনাবাহিনী। একইসঙ্গে চলে এলাকা ফাঁকা করে দেওয়ার কাজ। স্তানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলা শুরু করে সেনার এখটি দল। তাঁদের বুঝিয়ে এলাকার বাড়িগুলি ফাঁকা করার কাজ শুরু হয়।

সেনার সঙ্গে অভিযানে সামিল ছিল জম্মু কাশ্মীর পুলিশ। এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, অবন্তীপোরায় যেতেই গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে সেনাবাহিনী ও পুলিশ। জঙ্গিদের খোঁজে এরপর শুরু হয় জোরদার তল্লাশি। ঠিক সেই সময় কোনও একটি জায়গায় ঘাটি গেড়ে থেকে হঠাৎই গুলি ছুড়তে শুরু করে জঙ্গিরা।

জঙ্গিদের ডেরা লক্ষ্য করে পালটা জবাব দিতে থাকে সেনাবাহিনীর জওয়ানরা। কিন্তু এলাকায় বসতি থাকায় একাধিক সতর্কতামূলক ব্যবস্থাও নিতে হয় সেনাকে। সেই সুযোগেই বারবার জায়গা বদলে নিরাপত্তারক্ষীদের উপর হামলা চালাতে থাকে জঙ্গিরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্তও গুলির লড়াই চলছে বলে জানা গিয়েছে। লুকিয়ে থাকা জঙ্গিদের খোঁজে সম্ভাব্য সব জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে কড়া নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে উপত্যকাকে। জম্মু কাশ্মীরের বিভিন্ন এলাকায় টহলদারি বাড়িয়েছে সেনা। একইসঙ্গে স্থানীয় সোর্সদের সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। এলাকায় বহিরাগত কাউকে দেখলেই নিকটবর্তী থানা বা সেনা আধিকারিকদের খবর দিতে বলা হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের।