অ্যাডিলেড: যার শেষ ভালো তার সব ভালো৷ গোটা দিন ভাল খেলে এসেও শেষটা সত্যিই সুখকর করতে পারলেন না চেতেশ্বর পূজারা৷

লড়াকু শতরান, ইনিংসের ভিত গড়ে দেওয়া, একার কাঁধে দলকে টেনে নিয়ে যাওয়া৷ মিডল অর্ডারের ব্যাটিং স্তম্ভের থেকে যা যা প্রত্যাশা ছিল সবটাই করলেন৷ ব্যাটিং বিপর্যয় কাটিয়ে পূজির দুরন্ত শতরানে ভর করে দিনের শেষে আড়াশো রানের গণ্ডি ছুঁয়েছে ভারত৷ কিন্তু ঐ, দিনের শেষের একটা ভুলই হিরো থেকে ভিলেন বানিয়ে দিল পূজিকে৷

আরও পড়ুন- সচিনদের বিকল্প হতে পারেন কপিলরা

দিনের একেবারে শেষ মুহূর্তে ৮৮ তম ওভারের পঞ্চম বলে এক রান নেওয়ার তাড়াহুড়ো করেন পূজারা৷ লক্ষ্য অবশ্যই শামিকে নট স্ট্রাইকার রাখা৷ অর্থ্যাৎ চাপটা নিজের কাঁধে রেখেই উইকেট বাঁচিয়ে ফিরতে চেয়েছিলেন৷ প্যাট কামিন্সের থ্রোয়ের সামনে শেষটায় হারতে হয়৷ তার আগের ওভারে স্টার্ককে একটি ছক্কা হাঁকানোর পরই মনসংযোগের অভাবটা ধরা পড়েছিল৷ ছক্কাটা নিখুঁত হলেও পরের বলেই খোঁচা খেতে খেতে বেঁচেছিলেন পূজি৷

শেষবেলায় ক্ষমাহীন এই ভুল করে রান আউট না হলে ম্যাচের দ্বিতীয় দিন অ্যাডভান্টেজ নিয়ে মাঠে নামার সুযোগ ছিল ভারতের সামনে৷ প্রথম দিন শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ভারতের ঝুলিতে ২৫০ রান৷ আর পূজারার নামের পাশে ১২৩রান৷ অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়ার সুবর্ণ সুযোগ হারালেন চেতেশ্বর৷

কোনও এক ক্রিকেট বর্ষে সর্বাধিক রান আউট হওয়ার নজির ছিল প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক বিল লরির৷ ১৯৬৪ সালে টেস্টে ক্রিকেটে চার বার রান-আউট হয়েছিলেন বিল৷ চলতি ক্রিকেট বর্ষে লাল বলের ক্রিকেটে চার বার রান আউট হয়ে বিলকে ছুঁয়ে ফেললেন পূজি৷

আরও পড়ুন- গৌতমকে গম্ভীর না থাকার পরামর্শ কিং খানের

এবার আসা যাক পূজারা ব্যাটিংয়ে৷ দিনের প্রথম সেশনে কোহলি-রাহানেরা উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসার পর দলকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তোলেন সৌরাষ্ট্রের এই ব্যাটসম্যান৷২৪৬ বল খেলে চারটি বাউন্ডারিও ২টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ১২৩ রান হাঁকান পূজারা৷ টেস্ট কেরিয়ারে এটি পূজারার ১৬তম সেঞ্চুরি৷ রোহিতের সঙ্গে ৪৫, পন্তের সঙ্গে ৪১ ও অশ্বিনের সঙ্গে ৬২ রানের পার্টনারশিপে স্কোরবোর্ড সচল রাখেন ভারতীয় মিডল অর্ডারের ব্যাটিং স্তম্ভ৷ আউট হওয়ার আগে নবম উইকেটে মহম্মদ শামির সঙ্গে পূজারার পার্টনারশিপ ৪০ রানের৷

সেই সঙ্গে এদিন মাইলস্টোনে দ্রাবিড়কে ছুঁলেন পূজারা৷ টেস্টে ১০৮ ইনিংসে পাঁচ হাজার রানের গণ্ডি ছুঁয়েছিলেন দ্য ওয়াল৷ সৌরাষ্ট্রের ব্যাটসম্যান পাঁচ হাজার রানের মাইলস্টোন ছুঁতে সমসংখ্যাক ইনিংস নিয়েছেন৷

অন্যদিকে পূজারার শতরান ও রোহিতের ৩৭ছাড়া কেউই বলার মতো রান পাননি৷ দিনের শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ভারতের ঝুলিতে ২৫০ রান৷ ডনের দেশে টেস্ট সফরের শুরুতে এদিন ৩ রানে আউট কোহলি৷ বিরাট, রাহানেদের উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসার প্রবণতা দেখে মনে হচ্ছে ‘ঘরে বাঘ, বাইরে বিড়াল’ থেকে এখনও বেড়িয়ে আসতে পারেনি ভারতীয় ব্যাটিং৷

1 COMMENT

  1. Nation is Proud of Pujara. Star Players are the Villains not Pujara. Murli Vijay & K.L.Rahul both are worthless. Neither their performance or average are acceptable to the people but, the Selection Committee. Hope, the first test is not fixed by the illegal betting.

Comments are closed.