মুম্বই: আজ, ১৫ এপ্রিল চার হাত এক হওয়ার কথা ছিল অভিনেতা পূজা বন্দ্যোপাধ্যায় ও কুণাল ভর্মার। কিন্তু সারা দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। করোনা মোকাবিলা করতে এই অবস্থা জারি থাকবে ৩ মে পর্যন্ত। তাই আপাতত বিয়ের পরিকসল্পনা বাতিল হয়েছে পূজার। বিয়ের আগে ছিল মেহেন্দি, গায়ে হলুদ,সঙ্গীতের মতো অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা। সে সবই ভেস্তে গিয়েছে। আগেই জানিয়েছিলেন এদিন বিয়ে হচ্ছে না। কিন্তু বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য যা টাকা তাঁরা জমিয়েছিলেন তা করোনা মোকাবিলায় অনুদান হিসাবে দিচ্ছেন পূজা ও কুণাল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় দুজনের একটি ছবি পোস্ট করে পূজা লেখেন, আজ আমাদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিস্থিতির জন্য অনু্ষ্ঠান বাতিল করতে হয়েছে। যদিও বিয়ের রেজিস্ট্রিটা একমাস আগেই আমরা সেরে ফেলেছিলাম। তাই আইনি মতে আমরা বিবাহিত, এবং আজীবনের জন্য পরস্পরের সঙ্গী। আমরা বাবা-মা, দাদু-দিদার আর্শীবাদ নিয়ে নতুন জীবন শুরু করছি। আপনাদের সবার শুভেচ্ছা চাই। আমাদের দুজনের পরিবারই খুশি। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে সেইসব মানুষের কথা ভেবে আমরা চিন্তিত,যাঁরা নিজেদের জীবনের জন্য যুদ্ধ করছেন। বা যাঁরা প্রিয়জনকে হারিয়েছে। তাঁদের জন্য প্রার্থনা করছি।

অভিনেত্রী এর পরে লেখেন, আমরা একটা ছোট উদ্যোগ নিয়েছি। বিয়ের অনু্ষ্ঠান এখন হচ্ছে না। তাই সেই জমানো টাকা আমরা এখন অনুদান হিসাবে দিতে চাই যাদের এখন সত্যি টাকার দরকার আছে। কারণ এটা সেলিব্রেশনের সময় নয়। যখন পরিস্থিতি ঠিক হবে আর সব স্বাভাবিক ছন্দে ফিরে আসবে, তখন আমরা নিশ্চয় আনন্দ করব। জয় মাতা দি।

প্রসঙ্গত প্রায় ৯ বছর ধরে সম্পর্কে রয়েছেন পূজা ও কুণাল। তা নিয়ে রূপোলি জগতে বেশ জল্পনাও লেগে ছিল। কখনওই স্পষ্ট করে তাঁরা কিছু বলেননি। অবশেষে ২০১৭-য় এনগেজমেন্ট সারেন দুজনে। কিন্তু বিয়ে নিয়ে তখনও কিছু উচ্চবাচ্য করেননি তিনি। যে যাঁর নিজের কাজেই ব্যস্ত ছিলেন। অবশেষে এই বছর আন্তর্জাতিক নারী দিবসে বিয়ের খবর ঘোষণা করেছিলেন তিনি। তাই কাজও এই সময়ে বেশি নেননি। কিন্তু করোনার কোপে সেই সব পরিকল্পনাই ভেস্তে গিয়েছে। তবে বিয়ে নিয়ে অপেক্ষা ও উত্তেজনা দুটোই জারি রয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ