স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: অবস্থানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেন পিএসসি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চ। তবে আপাতত সরে এলেও সঠিক বিচারের লক্ষ্যে আইনের দ্বারস্থ হবেন তারা।

বৃহস্পতিবার নিজেদের দাবি দাওয়া তুলে ধরে উচ্চ আদালতে আবেদন জানাবেন তারা বলে জানান মঞ্চের আহ্বায়ক ইন্দ্রজিৎ ঘোষ।

আরও পড়ুন- পরমাণু অস্ত্র ছাড়বে উত্তর কোরিয়া বিশ্বাস করে না মার্কিন গোয়েন্দারা; লেফটেন্যান্ট জেনারেল

পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পি এস সি)-এর বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তুলে প্রতিবাদে সামিল হয়ে ছিলেন পিএসসি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চের সদস্যরা।

তাদের দাবি, মেধার ভিত্তিতে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। কিন্তু পাশ করলেও তাদের চাকরি দেওয়া হচ্ছে না। ২০৫২ জনকে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হলেও চাকরি দেওয়া হয়েছে মাত্র দেড়শো জন পরীক্ষার্থীকে। তাহলে কেন ২০৫২ জনকে ডাকা হল তাদের! এই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন!

আরও পড়ুন- ভারতের কাছে হারের পর আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন পাকিস্তান কোচ

এই দাবি তুলে ধরেই মঙ্গলবার রাসবিহারী স্থিত পিএসসি কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভে সামিল হন তারা। বসেন ধর্নায়। পিএসসি দুর্নীতি মুক্ত মঞ্চের সদস্যদের দাবি, রাজ্য সরকারের শূন্যপদ ছিল বলেই ২০৫৩ জনকে ডাকা হয়েছিল।

যদি শূন্যপদ না থেকে থাকে তাহলে এতজনকে ডাকবার কারণ কি? এই দাবি করেই এদিন সকাল ১১ টায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন মঞ্চের সদস্যরা। দাবি মানা না হলে অবস্থানে যাওয়ার রাস্তা ধরবেন বলেও শোনা গিয়েছিল। কিন্তু বেলা গড়াতেই বিকেলে তারা অবস্থানের সিদ্ধান্ত থেকে সরে যান। তবে মঞ্চের আহ্বায়ক ইন্দ্রজিৎ ঘোষ জানান, আগামী বৃহস্পতিবার নিজেদের দাবি দাওয়া তুলে ধরে উচ্চ আদালতে আবেদন জানাবেন।