নয়াদিল্লি: সম্প্রতি হিন্দু এবং শিখদের উপর হামলার খবর পাওয়া গিয়েছে আফগানিস্তানে। এই পরিস্থিতিতে যারা ভারতে ফিরে চান সেইসব হিন্দু-শিখদের উদ্দেশ্যে ভিসা এবং প্রয়োজনীয় কাগজ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে, এমনটাই জানিয়েছে ভারতের বিদেশমন্ত্রক।

বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, “যারা ভারতে এসে থাকতে চাইছেন তাঁদের আবেদন পরীক্ষানিরীক্ষা করে দেখা হবে এবং নির্দিষ্ট নিয়ম মতন কাজ করা হবে”।

সম্প্রতি নিদান সিং সচদেভ প্রসঙ্গে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। উল্লেখ্য, ভারতের অনেকেই কাজের সূত্রে আফগানিস্তানে থাকে, আর সেই কারণে পাকিস্তান সমর্থিত সন্ত্রাসী সংগঠনগুলো আফগানিস্তানে ভারতীয় এবং সংখ্যালঘুদের টার্গেট করে থাকে। বিগত কয়েক বছরে এই ঘটনা সহস্রবার হয়েছে। ভারত সরকার গত বছরই নাগরিকতা সংশোধন আইনে বদল এনেছিল। আইন অনুযায়ী, পাকিস্তান, আফগানিস্তান আর বাংলাদেশে থাকা হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, খ্রিষ্টান, ইসাই আর পার্সিদের ভারতের নাগরিকতা দেওয়া হবে।

সূত্রের খবর, ভারত সরকারের তরফ থেকে খুব শীঘ্রই এদের দিল্লী নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হবে। এরপর এদের সবাইকে দীর্ঘকালীন ভিসা দেওয়া হবে। বিগত কয়েক মাসে আফগান শিখ নেতা আর হিন্দু নেতা সমেত সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার বাড়িয়েছে পাকিস্তান সমর্থিত সন্ত্রাসী সংগঠনগুলো। সেখানে এক আফগান শিখ নেতাকে অপহরণও করে নেওয়া হয়েছিল। এরপর থেকে সুরক্ষা নিয়ে চিন্তা বেড়ে যায়।

সুত্র অনুযায়ী, প্রায় ৭০০ আফগান শিখ আর হিন্দুকে দিল্লী আসার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এবার এদের ভারতে জায়গা দেওয়া হবে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।