জামাইকা: পুলিশি হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে উত্তাল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। জর্জকে শ্বাসরোধ করে মৃত্যুর প্রতিবাদ এবং ন্যায়বিচারের দাবিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ জুড়ে চলছে বিক্ষোভ। শুধু মার্কিন মুলুকেই নয়, প্রতিবাদের ঝড় আছড়ে পড়েছে বিশ্বের অন্য প্রান্তেও৷ সেই প্রতিবাদে এবার সামিল হলেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার ক্রিস গেইলও।

মঙ্গলবার বর্ণবৈশম্য নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন এই ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার৷ গেইল জানান, ক্রিকেটেও বর্ণবৈশম্য রয়েছে। ৪০ বছরের তারকা ক্রিকেটার সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান, বিশ্বজুড়ে একাধিক দলের হয়ে খেলার সময় তিনি বর্ণবৈষম্যের শিকার হয়েছেন।

কয়েক দিন আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড নামক এক যুবককে মাটিতে শুইয়ে ঘাড়ে হাঁটু চাপা দিয়ে খুন করেন পুলিশ অফিসার ডেরেক চাউভিন। শ্বাসরুদ্ধ অবস্থায় প্রাণের জন্য ভিক্ষা চাইলেও মন গলেনি শ্বেতাঙ্গ পুলিশ আধিকারিকের। এর পরই দুনিয়া জুড়ে প্রতিবাদের ঢেউ ওঠে।

মুখ খুলেছেন ক্রিস গেইল। নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টে বর্ণবিভেদ সৃষ্টকারী মানুষজনকে গালি আর ভৎর্সনা করেছেন ক্যারিবিয়ান এই ক্রিকেটার। তারপর তিনি লেখেন, ‘অন্যান্যদের মত কৃষ্ণাঙ্গদের জীবনও মূল্যবান। কৃষ্ণাঙ্গদের বিরুদ্ধে এই অত্যাচার বন্ধ হোক। আমিও বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট খেলার সময় বর্ণবৈষম্যের শিকার হয়েছি। কারণ আমি কালো। শুধু ফুটবলই নয়, ক্রিকেটেও বর্ণবিদ্বেষ রয়েছে। কিন্তু সবারই ভুলে যায়, কৃষ্ণাঙ্গরাই শক্তিধর৷ এর জন্য তারা গর্বিত।’

শুধু গেইলই নন, কৃষ্ণাঙ্গদের পক্ষে জোরালো আওয়াজ তুলেছেন একাধিক ক্রীড়াবিদ। কিংবদন্তি বাস্কেটবল খেলোয়াড় লেব্রন জেমসও নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে ফ্লয়েডের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন৷ কিংবদন্তি টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামসও ইনস্টাগ্রামে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।

ফ্লয়েডের মৃত্যুর ন্যায়বিচারের দাবি তুলে প্রতিবাদ ওঠে বুন্দেশলিগার মঞ্চে। জ্যাডন স্যাঞ্চো থেকে আশরাফ হাকিমি, রবিবার ‘জাস্টিস ফর জর্জ ফ্লয়েড’ দাবিতে সোচ্চার হলেন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের দুই গোলস্কোরার। ‘জাস্টিস ফর জর্জ ফ্লয়েড’ লেখা টি-শার্ট পরেই এদিন মাঠে নামেন ইংরেজ স্ট্রাইকার স্যাঞ্চো।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।