স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: জনবহুল রাস্তার পাশে মদের দোকান ঘিরে বিক্ষোভে উত্তাল হলো বাঁকুড়া সদর থানার সোনাধুয়া গ্রাম। অভিভাবকদের সঙ্গে নিয়ে জুনবেদিয়া, মানকানালী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অসংখ্য ছাত্র ছাত্রী ঐ মদের দোকান বন্ধের দাবিতে জুনবেদিয়া-গঙ্গাজলঘাটি রাস্তা অবরোধ করেন। এই অবরোধের ফলে আটকে পড়ে বহু যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন।

অবরোধকারীদের দাবী, ঐ মদের দোকান খোলার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট দফতরের অনুমোদন থাকলেও স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত এক্ষেত্রে কোনও অনুমোদন দেয়নি। সোনাধুয়া গ্রামের মূল রাস্তার উপর এই মদের দোকানকে কেন্দ্র করে এলাকায় দুষ্কৃতি দৌরাত্ম বাড়ছে।

আন্দোলনে অংশ নেওয়া ছাত্রী রুম্পা রানা বলেন, ঐ রাস্তা দিয়ে যাতায়াতের সময় আমাদের প্রায়শই কটুক্তি শুনতে হয়। অভিভাবকদের পক্ষে শিশির শর্মা, নির্মল রাণারা বলেন, এলাকার ২১টি গ্রামের মানুষ একত্রিত হয়ে আন্দোলনে নেমেছি। এবিষয়ে আর আগে প্রশাসনের কাছে সম্মিলিত দাবিপত্র পেশ হলেও কোন কাজ হয়নি বলে তাদের অভিযোগ। এই অবস্থায় এই মদের দোকান বন্ধের দাবি তারা জানান।

আরও পড়ুন : টার্গেট ২০২১: ৫ লাখ যুবককে নিয়ে মমতাকে জেতাতে মরিয়া প্রশান্ত

অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশ। পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন অবরোধকারী ছাত্র ছাত্রী ও অভিভাবকরা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশের পক্ষ থেকে ঐ বিতর্কিত মদের দোকানে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। এর আগেও এলাকার মানুষ এই দোকান বন্ধের দাবিতে আন্দোলন করলেও কোন কাজ হয়নি বলে অভিযোগ এলাকার মানুষের। এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে।

স্থানীয় প্রধান সুদর্শন গোস্বামীও জানিয়েছেন, ঐ দোকান খোলা বা বাড়ি তৈরীর বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দোকান মালিককে কোন অনুমতি তারা কোন অনুমতি দেননি। উনি বার বার পঞ্চায়েতে এলেও এলাকার পরিবেশ পরিস্থিতির কথা ভেবে অনুমতি দেওয়া হয়নি বলেই তিনি জানিয়েছেন।