নয়াদিল্লি: উন্নাও কাণ্ডের পর থেকে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। উন্নাও কাণ্ডের প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে নিজের ছয় বছরের মেয়ের গায়ে তেল ঢেলে আগুন জ্বালানোর চেষ্টা করলেন। ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির সফদরজং হাসপাতালের সামনে।

এর আগে বৃহস্পতিবার আদালতের শুনানিতে হাজিরা দিতে যাওয়ার সময়ে ওই তরুণীর উপর হামলা করে পাচজন। তাঁদের মধ্যে প্রধান দুই অভিযুক্ত ছিল বলে জানা গিয়েছে। তাঁরা প্রথমে ওই তরুণীকে মারতে থাকে।

তারপরে গলাতে ছুড়ি দিয়ে আক্রমণ করে এবং শেষে গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। যদিও স্থানীয়দের সহায়তাতে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু অবস্থা সঙ্গীণ হওয়াতে উড়িয়ে আনা হয়েছিল দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে। সেখানেই মারা যান ওই তরুণী। দীর্ঘ লড়াইয়ের পরে মৃত্যুর কাছে হার মানতে বাধ্য হয়েছিলেন ওই তরুণী। আর সেই ঘটনার প্রতিবাদ স্বরূপ এই ধরনের ঘটনা ঘটায় কিছুটা অবাক সকলে।

যদিও পুলিশ মা ও মেয়েকে উদ্ধার করেছে বলেও জানা গিয়েছে। উন্নাও নির্যাতিতার দেহ গ্রামের বাড়ির উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার এক ঘণ্টা পরে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে।

যদিও ইতিমধ্যে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ওই নির্যাতিতা তরুণীর প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। জানিয়েছেন দোষীদের দ্রুত শাস্তি দেওয়া হবে। এছাড়াও এই মামলা ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে নিয়ে যাওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন। এছাড়াও সমাজবাদি পার্টি নেতা অখিলেশ যাদব দোষীদের শাস্তির দাবীতে ধর্নাতে বসেছেন। এছাড়াও কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও উন্নাও গিয়েছেন নির্যাতিতা তরুণীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করার জন্য। সেখান থেকে তিনি রাজ্যর নারী নিরাপত্তার প্রসংত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।