মালদহ: ছাত্র ভরতি নিয়ে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগে উত্তাল গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়৷ অবস্থান বিক্ষোভে ছাত্ররা৷ শুক্রবার এই বিক্ষোভ পড়ল চার দিনে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র বিক্ষোভের পিছনে মদত রয়েছে বহিরাগতদের। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাসপেন্ডেড অধ্যাপকরাও থাকতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্বাগত সেন

ছাত্রদের অবস্থান বিক্ষোভের সূত্রপাত হয় ফরিদ মণ্ডল নামে এক ছাত্র বেশ কিছুদিন আগে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় নিউট্রেশন বিভাগে ভরতি হয়। সম্প্রতি, তা জানতে পারে ছাত্রছাত্রীরা। এরপর বিষয়টি তারা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানায়। কিন্তু কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে কোনও রকম সদুত্তর দেওয়া হয়নি পড়ুয়াদের। এরই প্রতিবাদে গৌড়বঙ্গের উপাচার্যকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে পড়ুয়ারা। বিক্ষোভে অন্যান্য শিক্ষকেরাও হতভম্ব হয়ে পড়ে।

বিক্ষোভ চলাকালীন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার বিপ্লব গিরিকে শারীরিকভাবে নিগ্রহের অভিযোগ ওঠে বিক্ষোভকারী ছাত্র-ছাত্রীদের বিরুদ্ধে। এমনকি দীর্ঘক্ষণ নিজের চেম্বারে আটক থাকার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন উপাচার্য স্বাগত সেন। দুজনকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়। মঙ্গলবার থেকে উপাচার্যের ঘরে অবস্থান বিক্ষোভ বসেন ছাত্র-ছাত্রীদের একাংশ।

শুক্রবারও চলে এই অবস্থান বিক্ষোভ। যদিও নিউট্রেশন বিভাগ বাদে সমস্ত বিভাগে পঠন-পাঠন ছিল এদিন স্বাভাবিক। একদিকে এই ভরতি নিয়ে যখন অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা। তখন অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রছাত্রীদের একটা বড় অংশ ও অধ্যাপকদের।