স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে কাজে যোগ না দিলে মাইনে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। এমনকি চাকরি থেকেও বহিষ্কারও করা হতে পারে। কলকাতা পুরসভার ‘এ’ গ্রেড তালিকাভুক্ত মেডিক্যাল অফিসারদের কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে এই বিজ্ঞপ্তি জারি করলেন পুর কমিশনার।

শহরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নিজেদের দায়িত্ব পালন করছেন না পুরসভার ‘এ’ গ্রেড তালিকাভুক্ত মেডিক্যাল অফিসারদের একাংশ। এই অভিযোগ তুলে মেয়র ফিরহাদ হাকিমের কাছে ওই অফিসারদের ছাঁটাই করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান(সিএমএইচও) সৌমিত্র ঘোষ। এরপরই পুর কমিশনার এই বিজ্ঞপ্তি জারি করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চুক্তিভিত্তিক ও স্থায়ী মেডিক্যাল অফিসার যদি এই কঠিন পরিস্থিতিতে কাজে যোগদান না করেন, তাহলে তাঁদের মাইনে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। এমনকি কাজ থেকে বহিষ্কারও করা হতে পারে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে কমিশনারের জারি করা নোটিফিকেশনে।

শহর জুড়ে করোনার প্রকোপে উদ্বিগ্ন কলকাতা পুরসভা। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন বস্তি ও জনবসতিপূর্ণ এলাকায় স্বাস্থ্য সমীক্ষা শুরু করেছে পুরসভা।

শহরের বিভিন্ন বস্তি এবং ঘিঞ্জি এলাকার প্রতিটি বাড়িতে য পুর স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা। কেউ সর্দি-কাশি-জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন কি না, সে বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হবে। সেই সঙ্গে বাসিন্দাদের শরীরের তাপমাত্রা মাপার কাজও হবে। ওই কাজে কেউ যাতে বাধা না দেন, তা নিশ্চিত করতে পুরকর্মীদের সঙ্গে থাকবে স্থানীয় থানার পুলিশও।

এর জন্য প্রতিটি বরোয় পুরসভার একজন করে অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প