চন্ডীগড়: ব্যাঙ্ক থেকে তাড়াতাড়ি ঋণ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে প্রপার্টি ডিলার এক বিবাহিত মহিলাকে প্রায় আট মাস ধরে ধর্ষণ করে৷ এমনকি বাড়ির দলিলও সে নিজের কাছেই রেখে দেয়৷ পাঞ্জাবের লুধিয়ানায় ঘটেছে এই ঘটনা৷ মহিলা বাড়ির লোকেদের ঘটনার কথা জানালে তার পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করে৷ নির্যাতিতার বয়ানের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত প্রপার্টি ডিলার ধর্মপালের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছে৷ অভিযুক্তের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ৷ নির্যাতিতার মেডিকেল টেস্টও করায় পুলিশ৷

নির্যাতিতা পুলিশকে জানায়, তার স্বামী একটি দোকানে কর্মরত৷ নিজের ছেলের নতুন ব্যবসার জন্য তার টাকার প্রয়োজন হয়৷ অভিযুক্ত ধর্মপাল মহিলাকে বাড়ি বন্ধক রেখে ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নেওয়ার পরামর্শ দেয়৷ বিবাহিতা ঋণ নিতে অস্বীকার করলে সে জানায় ব্যঙ্কে তার পরিচিত রয়েছে, তারা মহিলাকে তাড়াতাড়ি ঋণ পাইয়ে দেবে৷

অভিযুক্ত ঋণ পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েই মহিলাকে ধর্ষণ করে৷ অভিযুক্ত মহিলার বাড়ির দলিলও নিজের কাছে রেখে দেয়৷ কিছুদিন আগেও নির্যাতিতা দলিল নিতে ডিলারের বাড়িতে গেলে সে ফের তাকে ধর্ষণ করে৷
নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তি মামলা দায়ের করে অভিযুক্তের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ৷ তার বাড়ি ও অন্য এলাকাগুলি তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.