স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : বৃহস্পতিবার কলকাতা শহরের একাধিক জায়গাতে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ২৬ বছরে প্রতিবাদী এবং হিন্দু মুসলিম সম্প্রীতির জন্য একাধিক মিছিল করবে বিভিন্ন সংগঠন। সিপিএম, কংগ্রেসের পাশাপাশি অল ইন্ডিয়া মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিম(AIMIM) , সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন এবং উলেমা সংগঠনগুলি৷ দুদিন পরেই কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গাতে রামমন্দির নির্মাণের দাবিতে সমাবেশ করবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ৷

বৃহস্পতিবার মহাজাতি সদন থেকে সিপিএম-এর নেতৃত্বে বাম জোটগুলির একটি মিছিল হবে৷ চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, এমজি রোড, শিয়ালদহ, মল্লিকবাজার, পার্কসার্কাস হয়ে বামেদের মিছিল ঘুরবে বলে সূত্রের খবর৷ অল ইন্ডিয়া মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিম(AIMIM) মিছিল পার্কসার্কাস থেকে শুরু হয়ে রানী রাসমণি অ্যাভিনিউ অবধি আসবে৷ শিয়ালদহ স্টেশন থেকে আর একটি মিছিল আসবে রানী রাসমণি রোড অবধি৷

বাবরি মসজিদ ভাঙার দিনটিকে এক কলঙ্কিত দিন হিসেবে প্রতিবছরই স্মরণ করে আসে সিপিএম৷ কেন্দ্রে বিজেপির সরকার থাকায় সেই সমাবেশ আরও জোরালো করে সংখ্যালঘুদের বার্তা দিতে চাইছে বলেই রাজনৈতিক মহলের মত৷

অন্যদিকে চলতি মাসের ১৮ তারিখে কলকাতায় ‘হুঙ্কার সভা’র মতো সভা করার কথা জানিয়েছে সংঘ পরিবার৷ রাম মন্দির নিয়ে সারা দেশেই একের পর এক কর্মসূচি নিয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, বজরং দল এবং আরএসএসের মতো হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি৷ একাধিক জায়গাতে সাধু-সন্তদের নিয়ে সমাবেশ করেছে তারা৷

রাজ্যের প্রতিটি জেলায় গেরুয়া সমাবেশের পাশাপাশি রাম মন্দিরের দাবি নিয়ে রাজ্যের প্রত্যেক সাংসদদের দ্বারস্থ হচ্ছে ভিএইচপি ৷ সংগঠনটির বাংলার মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর সৌরিশ মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘‘প্রতিটি এলাকা থেকে সাধারণ মানুষের এক বড় অংশ এবং সংগঠনের ‘প্রতিনিধিমন্ডল’ নিজেদের কেন্দ্রের সাংসদের সঙ্গে দেখা করছে রামমন্দির নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা জানাতে৷ তারা সেই সাংসদকে অনুরোধ করবেন যাতে তিনি লোকসভায় প্রধানমন্ত্রীকে রামমন্দির তৈরির জন্য চাপ দেন৷ রামমন্দির তৈরি হলেই রাজ্যের অগণিত রামভক্ত মানুষের বহুদিনের আকাঙ্ক্ষা মিটবে৷’’

Advertisements

3 COMMENTS

Comments are closed.