নয়াদিল্লি: এক্সিট পোল ইতিমধ্যেই প্রকাশিত৷ তাতে ফের গেরুয়া ঝড়ের ইঙ্গিত৷ খুব একটা সুবিধা করতে পারবে না কংগ্রেস, জানান দিচ্ছে সমীক্ষা৷ তবে এই এক্সিট পোল দেখে হতাশ হবেন না৷ এমনই বার্তা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর৷

এদিন দলীয় কর্মী সমর্থকদের উদ্দ্যেশে তিনি বলেন বুথ ফেরত সমীক্ষা দেখে হতাশ হবেন না, ভেঙে পড়বেন না৷ এই ধরণের সমীক্ষাগুলিকে গুরুত্ব দেওয়ার দরকার নেই৷ আসল ফলাফল ভোটাররাই দেবেন৷ এক্সিট পোলের বেশিরভাগই ভুয়ো হয় বলে মত প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর৷

প্রিয়াঙ্কার দাবি কংগ্রেসের মনোবল ভেঙে দেওয়ার জন্যই বিজেপি চক্রান্ত করে এই ধরণের বুথ ফেরত সমীক্ষাগুলি করিয়েছে৷ তাই তাঁর বার্তা কোনওভাবেই যেন প্ররোচনায় পা না দেওয়া হয়৷ কংগ্রেস কর্মীদের শক্ত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷

আরও পড়ুন : নতুন সরকারের কাছে তৃণমূলের রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবি জানাবে বঙ্গ বিজেপি

স্ট্রং রুমের আশেপাশে সন্দেহজনক গতিবিধি নজরে আসলে প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা৷ তিনি আরও বলেন ইভিএম এখন স্ট্রং রুম বন্দী৷ ফলে নানা চক্রান্ত করার ঘটনা ঘটতে পারে৷ সাবধান থাকুন, সতর্ক থাকুন৷ ২৩ তারিখ পর্যন্ত এই সতর্কতা জারি রাখুন৷

একই কথা বলেন এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ারও৷ তাঁর মতে এই সব এক্সিট পোলকে গুরুত্ব দেওয়ার কিছু হয়নি৷ সাধারণ মানুষ এই বুথ ফেরত সমীক্ষা নিয়ে বেশ হতাশ৷ আসল চেহারা দেখা যাবে ২৩ তারিখ৷ তার আগে, এত কথা না বলাই ভালো৷ ২৩ তারিখই সব সত্যি সামনে আসবে বলে আশা তাঁর৷

টাইমস নাও বলছে ৩০৬ টি আসন নিয়ে ক্ষমতায় আসছে সেই বিজেপি৷ সমীক্ষা বলছে মার্জিন কমেছে, তবু মোদী-শাহ ম্যাজিক কাজ করে গিয়েছে এবারও৷ ২০১৪ সালে কাজ করেছিল প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার হাওয়া৷ আর এবার প্রতিষ্ঠানের পক্ষেই রায় দিয়েছে দেশ৷ প্রো ইনকামবেন্সি ফ্যাক্টর কাজ করে গিয়েছে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে, এমনই জানাচ্ছে টাইমস নাও৷

আরও পড়ুন : সম্প্রীতির নজির, অযোধ্যার সীতা-রাম মন্দিরে চলল ইফতার

সমীক্ষায় চমকে দিয়েছে বাংলা৷ বুথ ফেরত সমীক্ষা বলছে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনের মধ্যে ১১টি পেতে চলেছে বিজেপি৷ ৯টি আসন বাড়িয়ে মুকুল রায়কে স্বস্তি দিয়ে বাংলায় ফুটতে চলেছে পদ্মফুল৷ অন্যদিকে ২৯টি আসন পাবে তৃণমূল, বলছে সমীক্ষা৷ শতাংশের হিসেবে বিজেপির দখলে ৩১.৮৬ শতাংশ৷ কংগ্রেসের শিকে ছিড়বে ৮.৮ শতাংশ৷ তৃণমূলের দখলে ৩৯.১ শতাংশ ও বামেদের ভাগ্যে জুটবে ১৫.৯ শতাংশ ভোট৷

নজরে ছিল উত্তরপ্রদেশ৷ বলা হয় এই রাজ্যের সবচেয়ে বেশি আসন যার, কেন্দ্রে ক্ষমতা তার৷ ৮০টি লোকসভা আসনের মধ্যে বিজেপির ভাগ্যে আসতে চলেছে ৫৬টি আসন৷ সেখানে মহাগঠবন্ধন বা এসপি বিএসপি জোট পাচ্ছে ২০টি আসন৷