নয়াদিল্লি: পদ্ম শিবিরের মোদীর বিরুদ্ধে এবার কী ‘হাতে’র বাজি প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভঢ়রা? জল্পনা উসকে দিলেন কংগ্রেসের ‘জামাই রাজা’ রবার্ট ভঢ়রা৷

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রবার্ট বলেন, ‘চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দলের শীর্ষ নেতৃত্বর৷ তবে বারাণসী থেকে ভোটে লড়তে প্রস্তুত প্রিয়াঙ্কা।’ স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, তবে কি বারাণসী থেকে ভোটে লড়ার সিদ্ধান্ত স্রেফ সময়ের অপেক্ষা? স্বামীর মন্তব্যে রহস্য দানা বাঁধলেও প্রিয়াঙ্কা বা কংগ্রেসের তরফে এপ্রসঙ্গে কিছু জানানো হয়নি৷

দিল্লিতে ‘বদলে’র ঢাক দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ সংগঠন মজবুত করতে আসমুদ্র হিমাচল ছুটে বেড়িয়েচেন তিনি৷ সেখানেই থেমে না গিয়ে মোক্ষম চালটিও দিয়েছেন ভোট ঘোষণার দিন কয়েক আগে৷ বোন প্রিয়াঙ্কাকে দলের সাধারণ সম্পাদকের পদে এনেছেন৷ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দেশের সব চেয়ে বড় রাজ্য উত্তরপ্রদেশের পূর্বভাগের দলীয় সংগঠন মজবুত করার৷

রাজীব তনয়ার রাজনীতিতে আগমণ, দলের হাল ধরায় উজ্জীবিত কংগ্রেস কর্মী, সমর্থকরা৷ তাদের দাবি মোদীর বারাণসী থেকে প্রার্থী করা হোক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভঢ়রাকে৷ প্রিয়াঙ্কা ক্যারিশ্মা ঘিরে আশঙ্কার দোলাচলে বিজেপিও৷ তাই প্রিয়াঙ্কার রাজনীতিতে প্রবেশ মাক্রই তাঁকে নিশানা করে নানা কথার স্রোত গেরুয়া শিবিরের নেতাজের মুখে৷ তাতে অবশ্য দমে না গিয়ে দাদা রাহুলকে সঙ্গে নিয়ে প্রিয়াঙ্কা মাত করছেন রাজনীতির ময়দান৷

দলীয় কর্মীদের একাংশের দাবি মেনে কি ভোটে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ভোটে লড়বেন প্রিয়াঙ্কা? কিছু খোলসা করেননি তিনি নিজে? মোদী মনোনয়ন জনা দিয়ে দিয়েছেন৷ কংগ্রেস প্রার্থী ঘোষণা করেনি৷ কে হবেন বারাণসীতে মোদীর প্রতিপক্ষ? স্বামী রর্বাট ভঢ়রার মন্তব্যে ফের সামনে সেই প্রশ্ন৷

এলাহাবাদ থেকে বারাণসী, গঙ্গাযাত্রা করে নিজের রাজনৈতিক জীবনের সূচনা করেছেন রাজীব-সোনিয়া কন্যা৷ জীবনের প্রথম নির্বাচনে হেভিওয়েট নরেন্দ্র মোদীর মুখোমুখি হবেন তিনি? শুরুটা যদি হয় পরাজয় দিয়ে৷ দলের ভিতর বাইরে প্রশ্ন উঠবে তাঁর নেতৃত্ব দান ক্ষমতা নিয়ে৷ কিন্তু জিতলেই বাজি মাত৷ তাই আপাতত সহ দেখেই পা ফেলতে চাইছেন রর্বাট জায়া প্রিয়াঙ্কা৷