মুম্বই : আর পাঁচজন সেলেব্রিটির মতো নন, সাধারণ মানুষের মতো এবার কাথুয়া গনধর্ষণ ও খুন নিয়ে মুখ খুললেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ৷ সম্প্রতি ট্যুইট করে প্রকাশ করলেন যে তিনি কতটা বিরক্ত এই গোটা ঘটনাটি নিয়ে৷ এই নৃশংস ঘটনার পরও যে কোনও সঠিক সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি দেশের আইনি ব্যবস্থা, সেই নিয়েও দুঃখপ্রকাশ করেছেন তিনি৷

‘ইউনিসেফ’র গুডউইল অ্যাম্বাসাডার হওয়ার কারণেনানান ইভেন্টে উপস্থিত থাকতে হয় তাঁকে৷ গুরুত্বপূর্ণ একটি দায়িত্ব বহন করেন তিনি৷ দিন কতক আগে সিরিয়ার ভয়াবহ বোমা বিস্ফোরণের পর সেখানেও তিনি উপস্থিত হয়েছিলেন৷

এছাডা়ও ভারতীয় মেয়েদের জন্য এই অভিনেত্রী অগণিত স্বপ্ন বুনছেন৷ তাদের উন্নতির আশা নিয়ে এগোচ্ছেন তিনি৷ সেই নিয়েও একটি অনুষ্ঠানে বিস্তারিত আলোচনা করেছিলেন৷ বিভিন্ন ধরণের সচেতনতার প্রোগামেও উপস্থিত থাকেন তিনি৷ তারকা ছাড়াও একটি সাধারণ মানুষের দায়িত্ব হিসেবেই ফের গর্জে উঠলেন কাথুয়া গণধর্ষণের মামলার বিরুদ্ধে৷

ট্যুইটে তিনি লেখেন, “রাজনীতি এবং ধর্মের ভেদাভেদের কারণে আসিফার মত আরও কত শিশু এইভাবে বলিদান দেবে নিজের? … বিতৃষ্ণা এসে গিয়েছে আমার… দ্রুত অ্যাকশন নেওয়ার সময় এটা৷ আমরা আসিফা এবং মানবতার কাছে ঋণী৷ #justiceforAsifa

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।