নয়াদিল্লি: দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে৷ পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও৷ সরকারি ল্যাবের পাশাপাশি কিছু বেসরকারি ল্যাবকেও করোনা পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হয়েছে৷ এবার এই বেসকারি ল্যাবগুলিকেও বিনা পয়সায় করোনা পরীক্ষা করতে হবে বলে নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট৷

শীর্ষ আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, করোনা পরীক্ষার জন্য কোনও অর্থ নিতে পারবে না বেসরকারি ল্যাবগুলি৷ পরীক্ষার খরচ পরে কেন্দ্রীয় সরকার বেসরকারি ল্যাবগুলিকে দিয়ে দেবে৷ গোটা প্রক্রিয়া ঠিক কী ভাবে রূপায়িত হবে, তা স্থির করতেও কেন্দ্রীয় সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে শীর্ষ আদালত৷ শশাঙ্ক দে নামে এক আইনজীবীর করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট৷

বুধবার সুপ্রিম কোর্টের দুই বিচারপতি অশোক ভূষণ এবং এস রবীন্দ্র ভাটের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে৷ কেন্দ্রের তরফে অবশ্য শীর্ষ আদালতকে জানানো হয়, দেশের ১১৮টি সরকারি ল্যাবে করোনা নির্ণয়ের জন্য দৈনিক ১৫০০০ নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছিল৷ কিন্তু বেশি করে পরীক্ষা করার জন্য পরে দেশ জুড়ে ৪৭টি বেসরকারি ল্যাবকে করোনা পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হয়েছে৷ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকার আগেই পশ্চিমবঙ্গে পাঁচটি এবং গোটা দেশে ৭৯টি বেসরকারি পরীক্ষাগারকে অনুমোদন দিয়েছে।

এরাজ্যে অ্যাপোলো হসপিটাল, SRL লিমিটেড রেফারেন্স ল্যাবরেটরী সল্টলেক সিটি, SRL লিমিটেড, ফর্টিস হসপিটাল, সুরক্ষা ডায়াগনস্টিক,নিউ টাউন, মেডিকা সুপার স্পেস্যালিটি হসপিটালকে করোনা টেস্টের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর আগে থেকেই বেশ কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে৷ যেমন বেলেঘাটা আই ডি হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে৷ অন্যদিকে পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির পরীক্ষাগার ছাড়াও আলেপ্পে, বেঙ্গালুরু, হায়দরাবাদ ও মুম্বইয়ের ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চের চারটি পরীক্ষাগারে চিকিৎসার জন্য নমুনা পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বেলেঘাটা নাইসেড ও এসএসকেএম রয়েছে করোনা পরীক্ষাগার।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের সহায়তায় আমরা রাজ্যে করোনা ভাইরাস মামলার নমুনা পরীক্ষার সুবিধার্থে পাঁচটি ল্যাবরেটরি স্থাপন করেছি। কিং জর্জ মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (কেজিএমইউ), লখনউ, সঞ্জয় গান্ধী স্নাতকোত্তর ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস (এসজিপিজিআই), লখনউ, বাবা রাঘব দাস (বিআরডি) মেডিক্যাল কলেজ, গোরক্ষপুর, বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়, বারাণসী এবং আলিগড়।”