ছবি সৌজন্যে- এএনআই

সিওল: দক্ষিণ কোরিয়া সফরের দ্বিতীয় দিনে শহিদদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ এরপর তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইনের সঙ্গে দেখা করেন৷ তাঁকে ‘সিওল শান্তি পুরস্কারে’ সম্মানিত করা হয়৷ তিনিই প্রথম ভারতীয় যাঁকে এই সম্মান প্রদান করা হল৷

এই পুরস্কার ভারতীয় নাগরিকদের প্রতি উৎসর্গ করে তিনি জানান, সমগ্র বিশ্ব ভারতের ‘বসুধৈব কুটুম্বকম’ নীতিকে আপন করেছে৷ ভারত সবসময় বিশ্বে শান্তির বার্তা দিয়ে এসেছে৷ মহাত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্মজয়ন্তীতে এই পুরস্কার প্রাপ্তি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে জানান তিনি৷ মোদী এও জানান, এই পুরস্কারের সঙ্গে যে অর্থ দেওয়া হয়েছে (২০০,০০০ ডলার) তা তিনি নমামি গঙ্গে ফান্ডে দিতে চান তিনি৷

এই শান্তি সম্মানের বিশেষত্ব কী?
১৯৯০ সাল থেকে এই সিওল শান্তি পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে৷ এখনও পর্যন্ত কোফি আন্নান, অ্যাঞ্জেলা মর্কেলের মতো ব্যক্তিত্বরা এই পুরস্কার পেয়েছেন৷ এই পুরস্কারের জন্য চলতি বছরে ১৩০০ নাম এসেছিল, যার মধ্যে ১৫০ জনের নাম বেছে নেওয়া হয়, আর তার মধ্যে থেকেই মোদীনমিক্স, অ্যাক্ট ইস্ট-এর জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাতে তুলে দেওয়া হয় এই শান্তি পুরস্কার৷

দক্ষিণ কোরিয়াতে দাঁড়িয়ে মোদী সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়ার বার্তা দেন৷ তাঁর সুরে সুর মিলিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পুলওয়ামা হামলার তীব্র নিন্দা করেন৷ সন্ত্রাসবাদ দমনে দুই দেশ হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করবে বলেও জানানো হয়৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।