গ্রাফিক্স- kolkata24x7

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রামনবমীতে সরকার বাধা দিলে লঙ্কাকাণ্ড বাধবে৷ বক্তা, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ দিলীপ বলেন, ‘‘পরম্পরা অনুযায়ী রামনবমী পালন করা হবে৷ সারা রাজ্যেই পালন করা হবে৷ যদি সরকার বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে তবে লঙ্কাকাণ্ড বাধবে৷’’

দিলীপে এই হুমকির পর সারা রাজ্যজুড়েই সতর্কতা জোরদার করা হয়েছে৷ দুই-একটি পারম্পরিক মিছিল বাদ দিয়ে নতুন করে অস্ত্র মিছিলের অনুমতি নেই৷ তবুও অনেক জায়গা থেকেই মিছিলের হুঙ্কার উঠেছে৷ বৃহস্পতিবার রাজ্য বিজেপির সভাপতির মন্তব্যের পর পরিস্থিত আরও ঘোরালো হল৷

এদিন দিলীপ বলেন, রামনবমীতে অস্ত্র নিয়ে মিছিল করার বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের বলার অধিকার নেই৷ এমনকী কোর্টও এটা বলতে পারে না৷ এটা পরম্পরা, প্রস্তুতি, স্বাভিমান আর অভিমানের প্রশ্ন৷ এই জন্য কোর্ট এবং সরকরের অনেক আগে থেকেই রামনবমী এবং তার শোভাযাত্রা চলে আসছে৷ এটা মানুষের আত্মসম্মানের প্রশ্ন৷ প্রতিটি জেলায় রামনবমীর শোভাযাত্রা বেরবে৷

উল্লেখ্য, রাম নবমীর দিন অস্ত্র নিয়ে মিছিল করা যাবে না, তা কিছুদিন আগেই সাফ জিনিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পুলিসকে স্বরাষ্ট্র সচিবের দপ্তর থেকে একটি রুট ম্যাপ তৈরির নির্দেশ দেওয়াও হয়েছে৷ এই রুট দিয়েই মিছিল যাবে৷

এতো গেল, প্রশাসনিক দিক৷ রামনবমী নিয়ে রাজনীতিও চলছে বিস্তর৷ শাসকদল রামনবমী পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়ছে৷ সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ৷ রামনবমীতে বিজেপি একাই রাজনৈতিক ফায়দা লুটবে, তা হতে দিতে চায়না তৃণমূল৷ ধর্মীয় অনুষ্ঠান নিয়ে শাসকদল এবং বিজেপির লড়াই দেখে তাকে প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক সাম্প্রদায়িকতার উদাহরণ হিসেবে ব্যাখ্যা করেছে সিপিএম৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।