নয়াদিল্লি: আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিনে দেশের মহিলাদের প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি জানালেন, মহিলাদের আরও শক্তিশালী করা তোলার কাজ করা দেশের পক্ষে সম্মানজনক। তবে শুধু মোদী নন, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও আন্তর্জাতিক নারী দিবসে দেশের মহিলাদের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন।

#নারীশক্তি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে মোদী লিখেছেন, ভারতীয় নারীদের একাধিক কৃতিত্ব অর্জনে দেশ গর্বিত। তাঁর পোস্টে তিনি বলেন, “আন্তর্জাতিক নারী দিবসে অদম্য #নারীশক্তিকে স্যালুট। ভারতীয় নারীদের একাধিক কৃতিত্ব অর্জনে দেশ গর্বিত। মহিলাদের আরও শক্তিশালী করা তোলার জন্য কাজ করার সুযোগ পাওয়া আমাদের সরকারের জন্য গর্বের বিষয়।”

আরও পড়ুন – বিশ্ব নারী দিবস : ভিতর থেকে ফিট থাকতে ডায়েটে থাকুক নানান খাবার

ভারতীয় মহিলারা যেভাবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নতুন রেকর্ড তৈরি করছে, সেসবের ওপর জোর দিয়ে রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিনে মহিলাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

মহিলাদের ক্ষমতা ও পুরুষ-নারী সমতা নিয়ে নিজের বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি লেখেন, আন্তর্জাতিক মহিলা দিবস উপলক্ষে সকল দেশবাসীকে শুভেচ্ছা। আমাদের দেশের মহিলারা বিভিন্ন ক্ষেত্রে নতুন রেকর্ড অর্জন করছে। আসুন আমরা মহিলা ও পুরুষের মধ্যে বৈষম্য দূরীকরণে সংকল্পবদ্ধ হই।

আরও খবর পড়ুন – আব্বাসের প্রার্থী নিয়ে গভীর নীরবতা, নন্দীগ্রাম ছাড়িয়ে আলোচনা তুঙ্গে

আন্তর্জাতিক নারীদিবসে দেশের সমস্ত নারীদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও। তিনি দেশনারীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, মহিলারা ইতিহাস ও ভবিষ্যত তৈরিতে সক্ষম। নিজের পথের বাধা কাউকে হয়ে উঠতে দেবেন না। নারীশক্তিকে কুর্ণিশ জানিয়েছে গুগুলও। এক বিশেষ ডুডল-এ নারীদের প্রতি সম্মান জানিয়েছে গুগল।

১৯১৩ থেকে ৮ মার্চ দিনটিকে এই নারীদিবস হিসেবে বিশ্বে পালন হচ্ছে। মহিলাদের সমান অধিকার। পৃথিবীর একটা অর্ধেক আকাশ তাঁদেরও। শোষণ ও বৈষম্যের নাগপাশ ছিঁড়ে ফেলে এই সচেতনতা আনতেই পালিত হয়ে আসছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস।

আরও খবর পড়ুন – প্রাতঃরাশে চাই ঝটপট পাউরুটি, আজই ঘরে আনুন ব্রেড মেশিন

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.