নয়াদিল্লি: বৃহস্পতিবার ভোরে তাঁর মৃত্যু হয় কেন্দ্রীয় পরমাণু শক্তি মন্ত্রকের পূর্বতন সচিব শেখর বসুর। দেশের পরমাণু শক্তি গবেষণায় পথিকৃৎ ছিলেন তিনি। কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। করোনা আক্রান্ত ছিলেন এই বিজ্ঞানী।

তাঁর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেন নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী জানান, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং পারমাণবিক বিজ্ঞানে দেশকে শীর্ষস্থানে নিয়ে যেতে শেখর বসু গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

একই সঙ্গে এই বিজ্ঞানীর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও। টুইটারে তিনি লেখেন, পদ্মশ্রী প্রাপ্ত প্রবীণ বিজ্ঞানী শেখর বসুর মৃত্যু জাতির জন্য এক বিশাল ক্ষতি। রাষ্ট্রপতি লেখেন, পারমাণবিক শক্তি সম্পন্ন সাবমেরিন আইএনএস অরিহন্তে শেখর বসু গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন। পাশাপাশি বিজ্ঞানীর পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের প্রতিও সমবেদনা জানান রাষ্ট্রপতি।

আরও পড়ুন – গত ৯ মাসে ৩৪ জন নাগরিককে হত্যা করেছে মাওবাদীরা : পুলিশ

২০১৪ সালে তিনি পদ্মশ্রী সম্মান পান। ভারতের প্রথম পরমাণুজ্বালানি চালিত ডুবোজাহাজ আইএনএস অরিহন্তের পরমাণুচুল্লির নকশা তৈরি বানিয়েছিলেন শেখর বসু। এছাড়া পরমাণু বর্জ্য নিষ্কাষণের জন্য নতুন নতুন পদ্ধতি উদ্ভাবনেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল তাঁর।

শেখর বসুর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। শোকের ছায়া সমগ্র দেশের বিজ্ঞানী মহলে। এক প্রবীণ বিজ্ঞানীকে হারাল দেশ।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।