নয়াদিল্লি: বিশ্ব জুড়ে চলছে করোনা আতঙ্ক। তারই মাঝে একাধিক নেটওয়ার্কিং কোম্পানি গ্রাহকদের জন্য নিয়ে এসেছে একাধিক সুবিধা। এই লকডাউনে যাতে কারোর কোনও অসুবিধা না হয় সেই কথা মাথাতে রেখে গ্রাহকদের জন্য বাড়ানো হয়েছে রিচার্জ প্ল্যান। জনপ্রিয় জিও, এয়ারটেল এবং ভোডাফোন আইডিয়ার গ্রাহকেরা যাতে কোন অসুবিধার মধ্যে না পরেন সেই কারণে অল্প দামের মধ্যে নিয়ে এসেছে একাধিক রিচার্জ প্ল্যান।

২০০ টাকার মধ্যে গ্রাহকদের জন্য ভোডাফোন আইডিয়ার তরফ থেকে আনা হয়েছে একাধিক অফার। ১৯৯,১৪৯,১২৯ টাকার ভোডাফোন আইডিয়ার প্ল্যান আনা হয়েছে গ্রাহকদের জন্য। ১৯৯ টাকার প্ল্যানে গ্রাহকদের জন্য থাকছে প্রতিদিন ১ জিবি করে ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। থাকছে আনলিমিটেড কল এবং মেসেজের সুবিধাও। এছাড়াও ১২৯ এবং ১৪৯ টাকার প্ল্যানে গ্রাহকেরা প্রতিদিন ২ জিবি করে ডেটা ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। কিন্তু ১২৯ টাকার প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ২৪ দিনের জন্য যেখানে ১৪৯ টাকার প্ল্যানের মেয়াদ ২৮ দিনের। এই প্ল্যানে থাকছে আন লিমিটেড কল এবং মেসেজের সুবিধাও।

জিওর তরফেও গ্রাহকদের জন্য ২০০ টাকার মধ্যে আনা হয়েছে একাধিক সুবিধা। ২০০ টাকার মধ্যে জিও গ্রাহকদের জন্য রয়েছে ১৯৯,১৪৯,১২৯ টাকার প্ল্যান। ১৯৯ টাকার প্ল্যানে থাকছে প্রতিদিন দেড় জিবি করে ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। এছাড়া জিও থেকে জিওতে আন লিমিটেড কল এবং অন্য নেটওয়ার্কে থাকছে ১০০০ মিনিট কল করার সুবিধা। এছাড়া ১৪৯ টাকার প্ল্যানে থাকছে প্রতিদিন প্রতিদিন ১ জিবি করে ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। থাকছে আন লিমিটেড কল এবং একাধিক সুবিধা। তবে এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ২৮ দিনের। এছাড়াও থাকছে ১২৯ টাকার প্ল্যান। এতে থাকছে ২ জিবি করে ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। থাকছে জিও থেকে জিও তে আন লিমিটেড কল এবং মেসেজের সুবিধা। এই প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ২৮ দিন।

এছাড়াও এয়ারটেলের তরফেও থাকছে ২০০ টাকার মধ্যে একাধিক সুবিধা। থাকছে ৯৮, ১৪৯,১৭৯ টাকার প্ল্যান গ্রাহকদের জন্য। ৯৮ টাকার প্ল্যানে গ্রাহকেরা পাবেন ২৮ দিনের জন্য মোট ৬ জিবি ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। এছাড়া ১৪৯ টাকার প্ল্যানে থাকছে প্রতিদিন ২ জিবি ডেটা ব্যবহারের সুযোগ। এছাড়া থাকছে আন লিমিটেড কল এবং মেসেজের সুবিধা ২৮ দিনের জন্য। ১৭৯ টাকার প্ল্যানে থাছে একই অফার কিন্তু থাকছে গাহকদের জন্য ২ লক্ষ টাকার জীবন বিমার সুবিধাও।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।